রাঙ্গামাটিতে পাহাড় ধ্বসে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

গত ১৩ জুন পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে সংঘঠিত ভয়াবহ পাহাড় ধ্বস ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে উদ্ধারকাজ পরিচালনাসহ ত্রাণ কাজে অংশগ্রহণ এবং সার্বিক সহায়তা প্রদানকারী ৪১ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে উদ্ভাস রাঙ্গা সম্মাননা স্মারক প্রদান করেছে উদ্ভাস নামে একটি অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন।

সোমবার রাঙ্গামাটিস্থ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা। রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের সদস্য হাজী মোঃ মূছা মাতব্বর সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

উদ্ভাস রাঙ্গামাটির সভাপতি তাসনিম হায়দার নির্জনের সভাপতিত্বে সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী রাঙ্গামাটি সদর জোন কমান্ডার লেঃ কঃ রিদুওয়ানুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডাঃ শহীদ তালুকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল আমিন সিদ্দিকী, রাঙ্গামাটি পৌরসভার প্যানেল মেয়র জামাল উদ্দিন বিশেষ অতিথি ছিলেন।

সংগঠনের প্রধান উপদেষ্ঠা মোঃ মোস্তফা কামাল, উপদেষ্টা মোঃ মোস্তফা কামাল, হারুন মাতব্বর, ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক দিারুল আলম এবং সংগঠনের সম্পাদক মামুনুর রশিদ মাতব্বর জামি। সম্মাননা স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন ১৩ জুনের ভয়াবহ প্রাকৃতিক দূরযোগে পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির সকল জনগন প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষ ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

তবে দূরযোগ পরবর্তী কালীন সময়ে সকলের সম্মিলিত সহযোগিতায় উদ্ধার কাজ পরিচালনা সহ দূর্গতদের সার্বিক সহায়তা প্রদানের যে ঐক্য এখানে সৃষ্ঠি হয়েছে তা দৃষ্টান্ত স্বরুপ। বক্তারা ভবিষ্যতে যাতে পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে ১৩ জুনের মতো ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সৃষ্ঠি না হয় সে দিকে আমাদের সজাগ দৃষ্ঠি রাখতে হবে। যে সব কারনে এই দূর্যোগের সৃষ্ঠি হয়েছিল সেগুলো মাথায় রেখে প্রতিরোধমূলক কর্মকান্ড গ্রহণ করতে হবে। মনে রাখতে হবে প্রকৃতির উপর নিষ্ঠুর আচরন করলে প্রকৃতি প্রতিশোধ নেবেই ।

রাঙ্গামাটির বিভিন্ন পাহাড়ে কিংবা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় প্রকৃতি ধ্বংস করে পূনরায় যাতে বসতি স্থাপন করা না হয় সেদিকে দৃষ্টি রাখার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। ভয়াবহ প্রাকৃতিক দূর্যোগের পর পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির সকল সম্প্রদায়ের লোকজন যেভাবে ঐক্যবদ্ধভাবে দূর্গতদের পাশে এসে দাড়িয়েছেন সে ধারা অব্যাহত রেখে সকল কর্মকান্ডে সম্মিলিত প্রয়াস চালানোর জন্য আহবান জানানো হয়।

পাশাপাশি এই দূর্যোগের পরপরই সরকারের একাধিক মন্ত্রীসহ উচ্চ পর্যায়ের সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাদের রাঙ্গামাটি আগমন, সরকারী এবং বেসরকারী উদ্যোগে বিপুল সংখ্যক ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ সহ দূর্গতদের স্বাস্থ্য সেবা সহ মানবিক সেবা প্রদানের জন্য সকলকে ধণ্যবাদ জানানো হয়।

পরে বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠান, বেসরকারী ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এবং ব্যক্তি পরযায়ে দূর্যোগকালীন সময় অনন্য ভূমিকা পালনের জন্য উদ্ধাস, রাঙ্গামাটি সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। ভয়াবহ প্রাকৃতিক দূর্যোগের সময় সংবাদ সংগ্রহ ও প্রচার থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে দূর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ জন্য সিনিয়র সাংবাদিক ও সংগঠক মোঃ মোস্তফা কামাল বিশেষ সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.