শনিবার খাগড়াছড়ির বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ চৌধুরীর কুলখানী

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

শনিবার খাগড়াছড়ির বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ চৌধুরীর কুলখানী। খাগড়াছড়ি জেলা শহরের অরুনিমা কমিউনিটি সেন্টারে কুলখানীর আয়োজন করা হয়েছে। সকালে কোরআনে খতম, দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

দুপুরে খাগড়াছড়ির সর্বস্থরের মানুষের অংশ গ্রহণকে সামনে রেখে খাওয়া, দাওয়ার আয়োজন করা হয়েছে। নিহত আব্দুল লতিফ চৌধুরীর শেলক বিশিষ্ট ঠিকাদার দিদারুল আলম দিদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধার আব্দুল লতিফ চৌধুরীর মুত্যুতে সড়ক পরিবহণ মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক এসএম সফিসহ সকল পরিবহণের নেতৃবৃন্দরা শোক-সমবেদনা প্রকাশ করে কালো ব্যাচ ধারণসহ ৪ দিনের কর্মসূচী হাতে নিয়েছে।

এসএম সফি বলেন, আব্দুল লতিফ চৌধুরীর একজন বীর মুক্তিযোদ্ধায় ছিলেন না। ছিলেন খাগড়াছড়িবাসী জন্য অভিভাবক। পরিবহণ সেক্টরসহ গুরুত্বপূর্ন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তার বিশেষ অবদান ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার বিশেষ অবদানের ফলে চির দিন খাগড়াছড়িবাসীর কাছে অমর হয়ে থাকবে।

গত শনিবার তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে বিকেল সাড়ে ৫টায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুর পর তার প্রথম নামাজে যানাজা শনিবার রাতে গ্রামেরবাড়ী উত্তর রাগুনিয়ায় নিজবাড়ীতে ও রবিবার বাদ জোহর খাগড়াছড়ির কেন্দ্রীয় ঈদগা মাঠে রাষ্ট্রিয় মর্যাদায় বীর এ মুক্তিযোদ্ধার দ্বিতীয় যানাজা শেষে বিকেলে খাগড়াছড়ি কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

৭২ বছর বয়সে মৃত্যুকালে তিনি ১ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ডায়বেটিকসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। তিনি খাগড়াছড়ি বর্তমান পৌর মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল আলম এর বড় ভগ্নিপতি। তিনি চালক সমবায় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন।