বাজার মূল্যের চেয়ে বেশি মূল্য চাইলেই হবে জেল!

॥ নূর হোসেন মামুন ॥

কাপ্তাই উপজেলাস্থ নতুন বাজার এলাকায় বুধবার দুপুরে ভ্রাম্যমান অাদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান অাদালত অভিযানে প্রাথমিক ভাবে কোন জরিমানা অাদায় করা হয়নি।

তবে স্থানীয় বাজারের দোকানে মূল্য তালিকা টাঙানো সহ পণ্যের মূল্য সংযত রাখার দিকে জোর দেওয়া হয়েছে। পণ্যের মূল্য বাজার মূল্যের চেয়ে বেশি চাওয়া হলেই তাদের জেল, জরিমানা দিতে হবে বলে সতর্ক করা হয়।

এদিকে ভ্রাম্যমান অাদালত পরিচালনা করেন কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল অামিন। তিনি নতুন বাজারে প্রবেশ করেই পায়ে হেটে বাজারের সকল মুদি দোকান, সবজি দোকান, মুরগি দোকান, কুলিং কর্ণার, মাছের দোকান, ব্যাকারী, কসমেটিক্স দোকান ও ঔষুধের দোকানে অভিযান চালান। অভিযানে তিনি প্রতিটি দোকানে পণ্যের মূল্য ও পণ্যের মেয়াদ দেখেন।

এছাড়া যে সকল দোকানে পণ্যের মূল্য তালিকা নেই সেসব দোকানে নিজে দাড়িয়ে থেকে পণ্যের মূল্য তালিকা টাঙিয়ে দেন। সর্বশেষ তিনি মা ব্যাকারির কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন। সেখানে তিনি বিপুল পরিমাণে মেয়াদ উর্ত্তীণ খাবার জব্দ করেন। পরে তা নষ্ট করে দেন এবং ভবিষ্যতে এমন কাজ থেকে বিরত থাকতে বলে প্রতিষ্ঠানটির মালিককে সতর্ক করেন তিনি। অন্যথায় কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা বাজার কর্মকর্তা মোস্তাক অাহম্মেদ, নতুন বাজার বণিক কল্যাণ সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি বাবু সাগর চক্রবর্ত্তী, নতুন বাজার বণিক কল্যাণ সমবায় সমিতি লিঃ এর সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী কাজী নূর মুন্না।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্টেট রুহুল অামিন বলেন, বাজারের কোন পণ্যের কত মূল্য তা মূল্য তালিকার মাধ্যমে দোকানের দৃশ্যমাণ স্থানে লটকিয়ে দিতে হবে।

তবে বাজার পরিদর্শন করে বাজার মূল্য খুব বেশি হেরফের অামরা দেখিনি। ব্যাবসায়ীদের কিছু কিছু ছোট ভুল অামার চোখে পড়েছে। তবে অামি তাদের প্রাথমিক ভাবে সতর্ক করেছি। বাজার মনিটরিং কার্যক্রমটি অাগামীতে অব্যাহত থাকবে এবং কোন ত্রুটি চোখে পড়লে সরকারি অাইন অনুযায়ী অাইন ভঙ্গকারীকে শাস্তি প্রদান করা হবে বলেও জানা তিনি।