১৮ জন গ্রামবাসীকে উদ্ধারের দাবিতে মানববন্ধন

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙামাটির নানিয়ারচর ও বন্দুকভাঙ্গা থেকে অপহৃত ১৮ জন গ্রামবাসীকে অক্ষত অবস্থায় মুক্তির দাবীতে সোমবার ঘিলাছড়ি বাজারসহ তিনটি স্থানে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে স্থানীয় লোকজন। উদ্বিগ্ন নানিয়ারচর এলাকাবাসী’র ব্যানারে পৃথক-পৃথকভাবে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কের ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
মানববন্ধন চলাকালে ঘিলাছড়িসহ কয়েকটি স্থানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলে নব্যমুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, বিক্ষুব্ধ মানুষ প্রশাসনের বাধার মুখেও মানববন্ধন করেছে। মানববন্ধন থেকে অবিলম্বে অপহৃত গ্রামবাসীদের অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার ও নব্যমুখোশ বাহিনী কর্তৃক অপহরণ, খুন-গুম, চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানানো হয়। সকাল ১১টায় ঘিলাছড়ি বাজার এলাকায় মানববন্ধনের জন্য ব্যানার নিয়ে রাস্তায় দাঁড়ালে টহলরত নিরাপত্তাবাহিনীর নির্দেশে নান্যাচর থানা পুলিশ কর্মসূচীতে বাধা দেন।
সন্ত্রাসীদের হুমকি-ভয়-ভীতি প্রদর্শন ও প্রশাসনের বাধার মধ্যেও মানববন্ধন সফল করার জন্য ‘নব্য মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ কমিটি’র পক্ষ থেকে নানিয়ারচরবাসীকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। সংগঠনটির আহ্বায়ক ও ২নং নান্যাচর ইউপি চেয়ারম্যান জ্যোতি লাল চাকমা ১০ জুলাই সকাল সন্ধ্যা সড়ক ও নৌ পথ অবরোধ সফল করতে উপজেলার যান-বাহন শ্রমিক ও মালিকদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন।
উল্লেখ্য, গেল রোববার নানিয়ারচর উপজেলা থেকে ১৬ জন ও বুধবার বন্দুকভাঙ্গা ইউনিয়ন থেকে ২ জন গ্রামবাসীকে একদল দুবর্ৃৃত্ত অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ অপহরণ ঘটনার জন্য ইউপিডিএফের পক্ষ থেকে এম,এন লারমা গ্রুপের জেএসএস ও গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফকে দায়ী করেছে। তবে ওই দুটি সংগঠন জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছে।