জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধনীতে রাঙামাটি শহরে বর্ণাঢ্য র‌্যালী-আলোচনা সভা

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

“স্বয়ংসম্পূর্ন মাছের দেশ-বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ”এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটিতে শুরু হয়েছে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৮। মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে সকালে রাঙ্গামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা।
জেলা পরিষদ সদস্য সাধন মমনি চাকমার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মেহাম্মদ ইয়াসিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রনজিত কুমার, জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মনোরন্জন ধর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তেরর আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক তপন কুমার, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কাজী বেলাল উদ্দিন বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, এশিয়ার বৃহত্তম কাপ্তাই হ্রদে ৩মাস মৎস্য শিকার নিষিদ্ধ থাকাকালীন মাছ শিকার না করার আহ্বান জানান। এই মা মাছ ডিম ছাড়ার পর পোনা মাছ বড় হলে তা আমাদের সম্পদে পরিনত হবে। বক্তরা বলেন, এই মিঠা পানির মাছ দেশের বিভিন্ন জেলায় রপ্তানি করে অনেক জেলে স্বাবলম্বি হয়েছে। তাই এ হ্রদের মা মাছ রক্ষায় জেলেদের এগিয়ে আসতে হতে।
আলোচনা সভা শেষে রাজবাড়ী ঘাট সংলগ্ন কাপ্তাই হ্রদে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়। এর আগে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ এবং জেলা মৎস্য অফিসের উদ্যেগে রাঙ্গামাটি শহরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রার নেতৃত্ব দেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা। এদিকে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি, কাপ্তাই, রাজস্থলী, লংগদু সহ সকল উপজেলায় র‌্যালী, আলোচনা সভা ও মাছের পোনা অবমুক্তিকরণ কর্মসূচী পালন করা হয়।