এইচএসসি’র ফলাফলে পাহাড়ের কলেজগুলোর সার্বিক চিত্র

॥ সৌরভ দে ॥

পার্বত্য জেলাগুলোতে এবার এইচ এস সি পরীক্ষায় ফল বিপর্যয় হয়েছে। পার্বত্য জেলায় পাশের হার রাঙামাটিতে ৪৫ দশমিক ৯৯, খাগড়াছড়িতে ৩৬ দশমিক ৫১শতাংশ, এবং বান্দরবানে ৬২ দশমিক ৩১ শতাংশ।

পার্বত্য এলাকার কলেজ সমূহের মধ্যে বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট কলেজ সবার শীর্ষে আর রাজস্থলী কলেজ সবার নীচে। পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে এইবার এইচ এস সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে ৫৯০৮ জন যার মধ্যে পাশ করেছে ২৯০৮ জন আর ফেল ৩০০০ জন। রাঙামাটির প্রত্যেকটি কলেজের ফলাফলের চিত্র নিম্নরূপঃ

রাঙামাটি সরকারী কলেজ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৪৫.৮১%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ২৩২ পাশ করেছে, ২০৯ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ২৫০ পাশ করেছে, ৩৪৮ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ১৬৮ জন পাশ করেছে, ২২৪ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১৪১৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৬৫০ জন পাশ করেছে। পুরো জেলার মধ্যে একজন মাত্র জিপিএ- ফাইভ পেয়েছে ।

রাঙামাটি সরকারী মহিলা কলেজ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৪৭.০১%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৪৮ পাশ করেছে, ১২৯ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ২১৬ পাশ করেছে, ২২৯ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ২৯ জন পাশ করেছে, ৯২জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৮৩৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩৯৩জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

বাঘাইছড়ি উপজেলার কাচালং কলেজে ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৩৬.৭৯%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৯৯ পাশ করেছে, ৩০ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৩০৬ পাশ করেছে, ১৯৩ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ৩৯ জন পাশ করেছে, ৩৭ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৬৯৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪৪৪ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৫৪.৬৫%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৪৬ পাশ করেছে, ২৪ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ১৬৭ পাশ করেছে, ১৪৪ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ১৬ জন পাশ করেছে, ২২ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৪১৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২২৯ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

কাউখালী উপজেলার কাউখালী কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৩৬.৩৬%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৩৩ পাশ করেছে, ৩০ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৫৪ পাশ করেছে, ১৪৬ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ১৭ জন পাশ করেছে, ০৭ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ২৮৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১০৪ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

কাউখালী উপজেলার ঘাগড়া কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৩৩.৬১%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ০৮ পাশ করেছে, ১১ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৩২ পাশ করেছে, ৬৩ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ০০ জন পাশ করেছে, ০৬ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১১৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪০ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

কাপ্তাই উপজেলার কর্ণফুলী কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৫৩.৬৭%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৪৬ পাশ করেছে, ৬৯ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ১৩৩ পাশ করেছে, ২১৭ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ৫০ জন পাশ করেছে, ০৩ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৬১৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩২৯ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি কাপ্তাই উপজেলার কর্ণফুলী পেপার মিলস্ হাই স্কুল এন্ড কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৩৩.৩৩%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৩ পাশ করেছে, ৪ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ০১ পাশ করেছে, ১০ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ০৩ জন পাশ করেছে, ০১ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ২১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ০৭ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

লংগদু উপজেলার রাবেতা মডেল কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৭৭.৯৯%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৮৪ পাশ করেছে, ১২ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ১৫৩ পাশ করেছে, ৬৩ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ৪৩ জন পাশ করেছে, ০৪ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৩৬৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২৮০ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

নানিয়ারচর উপজেলার নানিয়ারচর কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৩৫.০৪%। মানবিক শাখা থেকে ৩৫ পাশ করেছে, ৮৬ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ১৩ জন পাশ করেছে, ০৫ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১৩৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪৮ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাজস্থলী উপজেলার বাঙালহালীয়া কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ১৫.৭৩%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৩ পাশ করেছে, ৩৪ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ২৮ পাশ করেছে, ১৭৯ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ০২ জন পাশ করেছে, ১৮ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ২৬৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৪২ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাজস্থলী উপজেলার রাজস্থলী কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ১৪.৫২%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৩ পাশ করেছে, ৫৩ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ২০ পাশ করেছে, ১২৮ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ০২ জন পাশ করেছে, ২৮ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ২৪১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩৫ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি সদর উপজেলার লেকার্স পাবলিক কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৮০.৬২%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৩০ পাশ করেছে, ০১ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৪৭ পাশ করেছে, ১৭ জন ফেল করেছে, বিজ্ঞান শাখা থেকে ২৭ জন পাশ করেছে, ০৭ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১২৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১০৪ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি কাউখালী উপজেলার সৃজনী ট্রাষ্ট স্কুল এন্ড কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৫৪.৫৫%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ০৫ পাশ করেছে, ০২ জন ফেল করেছে। বিজ্ঞান শাখা থেকে ০১ জন পাশ করেছে, ০৩ জন ফেল করেছে। এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ০৬ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি বরকল উপজেলার বরকল রাজীব রাবেয়া কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৭৪.১৪%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ২৬ পাশ করেছে, ০৫ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৬০ পাশ করেছে, ৩১ জন ফেল করেছে, এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ১১৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৮৬ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি সদর উপজেলার রাঙামাটি পাবলিক কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ৫৫.১২%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ৩৩ পাশ করেছে, ২৯ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ৮০ পাশ করেছে, ৬৫ জন ফেল করেছে, এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ২০৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১১৩ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

রাঙামাটি লংগদু উপজেলার গুলশাখালী বর্ডার গার্ড মডেল কলেজ এ ২০১৮ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশের হার ১০০%। ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৭ পাশ করেছে, ০০ জন ফেল করেছে। মানবিক শাখা থেকে ২১ পাশ করেছে, ০০ জন ফেল করেছে । এ বছর সর্বমোট পাশ করেছ ৩৮ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩৮ জন পাশ করেছে। পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ- ৫ নেই।

অপরদিকে এইবার খাগড়াছড়ি থেকে এইচ এস সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে ৫৯৯৯ জন, যার মধ্যে পাশ করেছে ২৩৬৫ জন আর ফেইল ৩৬৩৪ জন। খাগড়াছড়ির প্রত্যেক্টি কলেজের ফলাফলের চিত্র নিম্নরুপঃ

১. খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ: মোট পরীক্ষার্থী-১০১৩ জন,পাশ-৪৮১ জন,জিপিএ-৫: ১জন,পাশের হার-৪৭.৪৮%.

২. খাগড়াছড়ি সরকারি মহিলা কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৬৮০ জন,পাশ-৩৬৮জন,জিপিএ-৫ নেই,পাশের হার-৫৪.১২%.

৩. খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৯২ জন, পাশ-৮৫ জন,জিপিএ-৫: ২ জন জন,পাশের হার-৯২.৩৯%.

৪. মহালছড়ি কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৫৬০ জন,পাশ-১৫৪ জন,পাশের হার-২৭.৫০%.

৫. মানিকছড়ি কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৯৭৭ জন,পাশ-২৪৪ জন,পাশের হার-২৪.৯৭%.

৬. মাটিরাঙা কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৭৭৬ জন,পাশ-২৮৬ জন,পাশের হার-৩৬.৮৬%.

৭. রামগড় সরকারি কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৫২৩ জন,পাশ-২৫০ জন,পাশেন হার-৪৭.৮০%.

৮. দীঘিনালা কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-১৩৮৭ জন,পাশ-৪৯৭ জন,পাশের হার-৩৫.৮৩%.

তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে সবচেয়ে ভালো ফলাফল করেছে বান্দরবান জেলা। এক নজরে বান্দরবানের প্রত্যেকটি কলেজের ফলাফলের চিত্র নিম্নরুপঃ

১. বান্দরবান সরকারি কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৬৯৩ জন,পাশ-৩৭৪ জন, জিপিএ-৫ নেই,পাশের হার-৫৩.৯৭%.

২. বান্দরবান সরকারি মহিলা কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৬৩৪ জন,পাশ-২৮৬ জন, জিপিএ-৫ নেই,পাশের হার-৪৫.১১%.

৩. বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-১৯৩ জন,পাশ -১৯০ জন,জিপিএ-৫: ৭ জন,পাশের হার-৯৮.৪৫%.

৪. মাতামুহুরি কলেজঃ মোট পরীক্ষার্থী-৫৮২ জন,পাশ-৪০৩ জন,পাশের হার-৬৯.২৪%.