ব্রেকিং নিউজ

বান্দরবানে সাবেক পাড়া কার্বারী ও তার ছেলেকে গুলি করে হত্যা!

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানে রুমা উপজেলায় পারিবারিক দন্ধের জের ধরে সাবেক পাড়া প্রধান ও তার ছেলে নিহত হয়েছে। শুক্রবার ৩ আগস্ট রাতে রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের উজানী পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো রুমার উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের উজানী পাড়ার সাবেক পাড়া প্রধান (কার্বারী) ক্যঅং প্রু মারমা (৬০), তার ছেলে মংএ চিং মারমা (৩১)। এ সময় গুলিতে আহত হয় ছোট ছেলে মংপ্রু হা মারমা (২২)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, পাড়ার নতুন কার্বারী মংরে অং মারমার সাথে ক্যঅং প্রুর দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্ব ছিল। বৃহস্পতিবার ২ আগস্ট পাশ্ববর্তী একটি জুমে কীটনাষক ছিটানো নিয়ে ক্যঅং প্রুর সাথে মংরে অং এর মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে শুক্রবার রাতে ১০/১২দুর্বৃত্তরা পাড়া প্রধানের বাসা ঘেরাও করে গুলি ও ছুরিকাঘাত করে তাদের হত্যা করে।

রুমা পাইন্দু ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা জানান, রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে একদল লোক সাবেক কার্বারী ক্যঅং প্রুর বাসায় হানা দিয়ে তাকে গুলি করে হত্যা করে। পরে তারা তার ছেলে মংএ চিং কে ধরে নিয়ে গিয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। অপর ছেলে মংপ্রু মারমার পায়ে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা জানান, পাড়া প্রধান ক্যঅং প্রুর লাশ বাসায় পাওয়া গেলেও তার ছেলে মংএ চিং এর লাশ পাড়ার পাশে একটি ঝর্ণার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। সকালে এলকাবাসী লোকজন জনপ্রতিনিধিদের খবরটি জানায়।

খবর পেয়ে ৪ আগস্ট শনিবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। এছাড়া সেনাবাহিনীর সদস্যরাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পুলিশের ধারনা পাড়ার বর্তমান কার্বারী মংরে অং মারমার সাথে আধিপত্য ও পারিবারিক দ্বন্দের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তবে ঘটনার পর থেকে পাড়া প্রধান মংরে অং পলাতক রয়েছে। ঐ পাড়ায় আতংক বিরাজ করছে। রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)শরীফুল ইসলাম জানান, এলাকাটি রুমা সদর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দুরে দুর্গম পাহাড়ি এলাকায়। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পারিবারিক দন্ধের জেরে ঘটনাটি ঘটেছে বলে খবর পেয়েছি। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

উল্লেখ্য, গত বছর ঐ পাড়ায় এক স্কুল শিক্ষককে হত্যার জের ধরে সাবেক পাড়া প্রধান ক্যঅং প্রু বর্তমান পাড়া প্রধান মংরে অংএর বিরুদ্ধে মামলা করে। এতে মংরে অংকে পুলিশ গ্রেফতার করে। কদিন আগে মংরে অং জামিনে বের হয়ে সাবেক পাড়া প্রধানকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।