ব্রেকিং নিউজ

মুক্তিযোদ্ধা পরিবারটির পুর্নবাসনের জন্য যা করার দরকার সবই করবো : জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

মুক্তিযোদ্ধা অনিল পাইকের পাশে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন সব সময় থাকবে। তার বসতবাড়ী সহ সকল সুযোগ সুবিধা রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক এ,কে,এম মামুনুর রশিদ। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পল্বব হোম দাশের নেতৃত্বে আদালতের নির্দেশে এই মুক্তিযোদ্ধার বসতবাড়ী উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

উচ্ছেদ অভিযানের আগেও জানতাম না এখানে একজন মুক্তিযোদ্ধা পরিবার থাকে। বীর মুক্তিযোদ্ধার কথা শুনে তাঁকে দেখতে এবং তার প্রতি সহমর্মিতা জানাতে ছুটে এসেছি। তিনি বলেন, জেলা প্রশাসন থেকে আপতত দশ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। তার বাড়ীঘর তৈরী করতে যা যা লাগবে তার ব্যবস্থা করা হবে।

মুক্তিযোদ্ধার অনিল পাইকের বাড়ি উচ্ছেদের খবর পেয়ে শুক্রবার (১০ আগষ্ট) দুপুরে কাউখালী উপজেলার ঘাগড়ায় ছুটে গিয়ে জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ এসব কথা বলেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধার পরিবারটিকে সহমর্মিতা জানিয়ে সদস্যরাসহ, স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বারদের সাথে কথা বলেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নজরুল ইসলাম, কাউখালী নির্বাহী অফিসার এ এম জহিরুল হায়াত, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উত্তম কুমার দাশ।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, এই জায়গাটি আসলে কি খাস জমি নাকি বাদি পক্ষের জমি যেহেতু কোর্টের আদেশ আছে তাই এবিষয়ে কথা বলতে চাই না। তারপরও আমি ওনার সাথে আছি। ওনার পুর্নবাসনের জন্য যা করা সরকারের পক্ষ থেকে সব কিছু করা হবে। তিনি মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর সুচিকিৎসার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার কথা বলেন।