ব্রেকিং নিউজ

লামায় ছেলের বিরুদ্ধে মা বাবাকে নির্যাতন ও প্রতারণার অভিযোগ!

॥ লামা প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানের লামা উপজেলায় এক ছেলের বিরুদ্ধে মা বাবাকে শারীরিক, মানসিকভাবে নির্যাতন ও প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তাই নয়, বেশি বাড়াবাড়ি করলে খুন করবে বলেও হুমকি প্রদান করে ছেলে। বুধবার দুপুরে ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৬) ও তার স্ত্রী সুমি আক্তারের (২২) বিরুদ্ধে লিখিতভাবে এ অভিযোগ করেন, বাবা নবাব মিয়া।

অভিযোগে জানা যায়, গত কয়েক মাস পূর্বে লামা সদর ইউনিয়নের লাইনঝিরি গ্রামের বাসিন্দা নবাব মিয়ার স্ত্রী রোকেয়া বেগম কক্সবাজারের চকরিয়াস্থ পৌত্রিক সম্পত্তি বিক্রি করে জমি কেনার জন্য বড় ছেলে সাইফুল ইসলামকে দুই লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা প্রদান করেন। এতে শর্ত ছিল মো. সাইফুল ইসলাম ও সাইদুল ইসলামের নামে যৌথভাবে সমান ভাগে জমি কিনতে হবে। কিন্তু সাইফুল ইসলাম তার স্ত্রীর কু-প্ররোচনায় ও প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ছোট ভাই সাইদুল ইসলামকে বঞ্চিত করে শুধু নিজের নামেই ৫ একর জমি ক্রয় করে তথায় বসতঘর স্থাপন পূর্বক ভোগ করছেন। ১৯ আগস্ট সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভাই সাইদুল ইসলামকে বাদ দিয়ে জমি ক্রয়ের বিষয়ে সাইফুল ইসলামের কাছে জানতে চান মা রোকেয়া বেগম। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী সুমি আক্তার। তারা কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মা বাবার ওপর হামলা করেন। এতে মারাত্মক জখম হন বাবা নবাব মিয়া ও মা রোকেয়া বেগম। একই সময় সাইদুল ইসলামের জন্য পড়ালেখার খরচ বাবদ রক্ষিত ৫৫ হাজার টাকা ও ৩০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকার নিয়ে নেয় তারা। পরে স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। পরে এ ঘটনায় নবাব মিয়া বাদী হয়ে ছেলে সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী সুমি আক্তারের বিরুদ্ধে উপাজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন।

সাইফুল ইসলামের মা রোকেয়া বেগম বলেন, দুই ভাইয়ের নামে জমি ক্রয়ের জন্য বিশ্বাস করে সাইফুল ইসলামকে নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিলাম। কিন্তু সাইফুল ইসলাম তার ভাই সাইদুল ইসলামকে বঞ্চিত করেই নিজের নামে জমি ক্রয় করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী আমাাদের ওপর হামলা করে। একে কেন্দ্র করে আমাদেরকে ঘর থেকে বের করে দেওয়ার জন্য অপচেষ্ঠা করছে তারা। এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।