সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের শেষ না করে ব্যারেকে ফিরবো নাঃ লে. কর্ণেল মো. সাইফ শামীম

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

পাহাড়ের অবস্থানরত সশস্ত্র সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের হুশিয়ার করেছেন আলীকদম জোনের নবাগত জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মো. সাইফ শামীম (পিএসসি)। তিনি বলেন, আমি যাকে ধরি ছাড়ি না। সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজির কোন খবর পেলে যতক্ষণ তাদের শেষ করতে পারবনা ততক্ষণ ব্যারেকে ফিরে আসব না। লামা-আলীকদমে বসবাসরত সকল ধর্ম-বর্ণের জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্ব।

তিনি আরো বলেন, অবাধে বৃক্ষ উজাড় ও পাহাড়ি ছড়া-ঝিরি থেকে পাথর উত্তোলনের কারণে প্রচুর পাহাড় ধস হচ্ছে। মারা যাচ্ছে অনেক মানুষ এবং ধ্বংস হচ্ছে সম্পদের। স্থানীয় প্রশাসনকে সাথে নিয়ে অবৈধ পাথর উত্তোলনকারী ও বনখেকোদের বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ নেয়া হবে। এছাড়া বিগত দিন হতে আলীকদম জোনের উদ্যোগে পরিচালিত বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান দেখাশুনার পাশাপাশি নতুন নতুন আরো প্রতিষ্ঠান নির্মাণে কাজ করবে সেনাবাহিনী। বিদায়ী ১৮ বেঙ্গল ইউনিটের মত নবাগত ২৩ বীর ইউনিটকে সহায়তা করতে তিনি সকলকে অনুরোধ করেন। মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) লামা-আলীকদম সেনা জোনে নবাগত জোন কমান্ডারের পরিচিতি সভা উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন আলীকদম সেনা জোনের বিদায়ী জোন কমান্ডার ও ১৮ বেঙ্গল ইউনিটের সিও লেঃ কর্ণেল মাহাবুবুর রহমান পিএসসি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ২৩ বীর ইউনিটের সিও ও নবাগত জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মো. সাইফ শামীম (পিএসসি)।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াইনু অং চৌধুরী, লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ জান্নাত রুমি, আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার, সরকারি মাতামুহুরী কলেজ অধ্যক্ষ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা কামাল উদ্দিন আহমদ, লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, লামা ১৭ আনসার ব্যাটেলিয়ন এর সিও আশ্রাফুল হক, লামা থানা অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা, আলীকদম থানা অফিসার ইনচার্জ রফিক উল্লাহ, ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, জামাল উদ্দিন, মিন্টু কুমার সেন, ছাচিং প্রু মার্মা, মো. জসিম উদ্দিন, মো. ফরিদ উল আলম সহ প্রমূখ। এছাড়া সরকারি বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষক, নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের হেডম্যান-কারবারী সহ স্থানীয় জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় শেষে আমন্ত্রিত সকলের জন্য মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করা হয়।