ব্রেকিং নিউজ

খাগড়াছড়িতে ভূমিহীন ৮৮ পরিবার পুর্ণবাসনের লক্ষ্যে পৌর কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের জায়গা পরিদর্শন!

॥ আল-মামুন – খাগড়াছড়ি ॥

খাগড়াছড়িতে ভূমিহীন, ক্ষতিগ্রস্থ ও পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকিতে বসবাসকৃত ৮৮ পরিবারকে পুর্ণবাসনের জায়গা নির্ধাণের লক্ষ্যে খাস জায়গা পরিদর্শন করেছে খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ ও এসিল্যান্ড ত্রিলা দেব।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় শহরের শালবন এলাকায় অবস্থিত এ পুর্ণবাসনের জায়গা দেখতে যান দলটি। এ সময় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, পুলিশও স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী তালিকাভূক্ত শালবনে পাহাড় ধ্বসের ঝুঁকিতে ৭৭ পরিবার ও নেন্সিবাজারের ভূমি ধ্বসের আশঙ্কায় উচ্ছেদকৃত ১১ পরিবারসহ মোট ৮৮ পরিবারকে পুর্ণবাসনের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

সে লক্ষ্যে খাস জায়গা নির্ধারণের উপজেলা প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে জায়গা পরিদর্শনকালে খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম, ঐ এলাকায় সড়ক যোগাযোগ ও যাতায়াত ব্যবস্থাসহ ক্ষতিগ্রস্থদের স্থায়ী ভাবে বসবাস উপযোগী করে তুলে নাগরিক সুবিধা প্রদানের বিষয়ে নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, খাস জায়গার মালিক জেলা প্রশাসক। জনস্বার্থে সরকারের প্রয়োজনে প্রশাসন সিদ্ধান্ত নেবে। জায়গা নিয়ে কোন ধরণের অভিযোগ থাকলে কাগজপত্র দেখে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে বলে তিনি জানান।

পরির্দশন দলটি শালবন পুর্নবাসনের জন্য প্রস্তাবিত জায়গা পরির্দশন শেষে নেন্সিবাজার অবৈধ ও ঝুঁকিপূর্নস্থ উচ্ছেদকৃত জায়গা পরির্দশন ও ৮৮ পরিবারের জন্য পরিকল্পিত আবাসন প্রকল্পের নমুনা অনুসরণে কুমিল্লা টিলাস্থ আবাসন প্রকল্পের কাজ দেখতে যান।