রেল ব্রীজের পিলার দেবে গিয়ে উত্তর বঙ্গের সাথে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ!

॥ আল আমিন মন্ডল – বগুড়া ॥

উত্তরবঙ্গের সাথে ২২ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১১টা থেকে রাজধানী ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। এতে করে মিটার গেজ সান্তাহার-বোনারপাড়া রেলপথে ১৬টি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে উত্তরবঙ্গ থেকে রাজধানী ঢাকায় যাতায়াতকারী হাজার হাজার ট্রেন যাত্রী সীমাহীন দূর্ভোগে পড়েছে। ব্রীজটি সংস্কার করতে রেল কর্তৃপক্ষ কাজ শুরু করে দিয়েছে।

বগুড়ার সৈয়দ আহম্মদ কলেজ রেল স্টেশনে ও ভেলুরপাড়ার মধ্যবর্তী চকচকিয়া রেল ব্রীজটি ১২০ফিট। ব্রীজের ৪টি পিলার ও ৫টি স্প্যান রয়েছে। বাঙালী ও সুখদহ নদীর শাখা নদীর প্রবাহিত হয়েছে ওই ব্রীজের নিচ দিয়ে। বর্ষা মৌসুমে প্রচন্ড স্রোতের তোড়ে ওই রেল ব্রীজের একটি পিলারের নিচে মাটি ধ্বসে গিয়ে প্রায় ১০ফিট গভীর হয়েছে। এতে করে ব্রীজের উপরে রেললাইনের স্লিপার সামান্য বেঁকে গেছে। এতে করে ওই ব্রীজের উপর দিয়ে ট্রেন চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ফলে শনিবার সকাল ১১টা থেকে লালমনিরহাট থেকে ঢাকাগামী ১১টি ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে করে গোটা উত্তরাঞ্চরের সাথে রাজধানী ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। আর এতে করে হাজার হাজার রেল যাত্রী দূর্ভোগে পড়েছে। স্থানীয় লোকজন জানান, ২২ সেপ্টেম্বর বেলা আনুমানিক ১১টার দিকে দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা সান্তাহারগামী দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনটি হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে ভেলুরপাড়া রেল ষ্টেশন থেকে ছেড়ে বগুড়ার দিকে যাত্রা শুরু করে। এ সময় ওই ব্রীজের উত্তর পার্শ্বে ট্রেনটি পৌছালে স্থানীয় লোকজন একটি লাল রঙের কাপড় উচিয়ে ট্রেন থামাতে ড্রাইভারকে সংকেত দেন। এ সময় ট্রেন ড্রাইভারের দৃষ্টিতে এলে ট্রেনটি থামিয়ে দেন এবং দূর্ঘটনা এড়াতে ট্রেনটি পুনরায় ভেলুরপাড়া রেল স্টেশনে ফেরত নিয়ে যাওয়া হয়। এছাড়াও লালমনিরহাট থেকে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনটিও বগুড়ার সোনাতলা স্টেশনে দুপুর ১টা থেকে থেমে রাখা হয়েছে।ঘটনার পর থেকে রেল বিভাগের লোকজন নড়েচড়ে বসেছে। শনিবার বিকাল ৫টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, রেলবিভাগের লোকজনের পাশাপাশি সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শফিকুর আলম, স্থানীয় জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা রোস্তম আলী মন্ডল সহ শতশত উৎসুক জনতার ভীড় লক্ষ করা গেছে।

এ ব্যাপারে রেল বিভাগের উর্ধ্বতন উপ-সহকারী (ব্রীজ) মোঃ নজরুল ইসলাম এবং সহকারী উর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আফজাল হোসেন জানান, ব্রীজের একটি পিলারের নিচের মাটি পানির তোড়ে সরে যাওয়ায় রেল লাইনের স্লিপার সামান্য বেঁকে গেছে।
বগুড়ার ষ্টেশন মাষ্টার বেনজুরুল ইসলাম জানান, শনিবার সকাল ১১টা থেকে উত্তর বঙ্গের সাথে রাজধানী ঢাকার ১৬টি ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। এছাড়াও তিনি আরও জানান, দ্রুত সময়ের মধ্যে ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক রাখতে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।