ব্রেকিং নিউজ

দীর্ঘ বিরতির পর রাঙামাটিতে আবারো মাঠে গড়াচ্ছে ১ম বিভাগ ফুটবল লীগ

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

মাঝখানে চার বছর বিরতি দিয়ে ছদক ক্লাব বনাম উইং ষ্টার ক্লাবের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে আবারো মাঠে গড়াচ্ছে রাঙ্গামাটির ক্রীড়াঙ্গনের সবচেয়ে বড় আসর পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ১ম বিভাগ ফুটবল লীগ। ১৭ অক্টোবর রাঙ্গামাটি মারী ষ্টেডিয়ামে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে এই ফুটবল লীগের। এ উপলক্ষে সোমবার সন্ধ্যায় রাঙ্গামাটি স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় পার্বত্য চট্টগ্রম উন্নয়ন বোর্ড ১ম বিভাগ ফুটবল লীগের প্রেস কনফারেরেন্স।

জেলা পুলিশ সুপার ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি মোঃ আলমগীর কবির প্রেস কনফারেন্সে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন। প্রেস কনফারেন্সে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন, বরুন বিকাশ দেওয়ান, সাধারণ সম্পাদক শফিউল আজম।

প্রেস কনফারেন্সে জানানো হয়, ১৭ অক্টোবর বেলা ২ টায় রাঙ্গামাটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ১ম বিভাগ ফুটবল লীগের আনুষ্টানিক উদ্বোধন করবেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা।

প্রেস কনফারেন্সে পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর কবির বলেন, ফুটবল একটি জনপ্রিয় খেলা হয়েও রাঙ্গামাটিতে তা দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত। এটা আমাকে বিস্মিত করেছে। তাই রাঙ্গামাটিতে দায়িত্ব নেয়ার পর আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যেভাবে হোক ফুটবল লীগ শুরু করতে হবে। আমার ইচ্ছে ছিল, সিঙ্গেল লীগ করবো কিন্তু ক্লাবগুলোর আর্থিক অনটন ও নানা কারণে করা সম্ভব হচ্ছে না। তবুও আশা করছি, এই ফুটবল লীগ এর আয়োজন দীর্ঘদিন পর হলেও এখানকার ফুটবল প্রেমী দর্শকদের মাঠমুখী করবে। তিনি লীগের সুষ্ঠু আয়োজনে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন এবং লীগের ব্যাপক প্রচারনার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহবান জানান।

ডিএসএ,র সাধারণ সম্পাদক শফিউল আজম, ফুটবল লীগ চালানো নবনির্বাচিত কমিটির জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। চ্যালেঞ্জটাকে গ্রহণ করে কিভাবে রাঙ্গামাটি ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে পারি সে লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ১ম বিভাগ ফুটবল লীগ দিয়েই যেস চ্যালেঞ্জের যাত্রা শুরু। মাঠে নিয়মিত খেলাধুলা রাখতে আমরা বদ্ধ পরিকর। তিনি রাঙ্গামাটি ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে সাংবাদিকদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

এদিন লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, এবারের লীগে জেলার স্থানীয় খেলোয়ারদের অংশ গ্রহন নিশ্চিত করার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এ লক্ষে প্রতিটি দলের ২৯ জন খেলোয়ারের মধ্যে নূন্যতম ২৫জন স্থানীয় খেলোয়ার তালিকাভুক্তি বাধ্যতামূলক এবং বহিরাগত ৪ জন খেলোয়ারের মধ্যে প্রতিটি খেলায় ৩ জন খেলার বিধান রাখা হয়েছে। এতে আরো জানানো হয়, এবারের লীগ আয়োজনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ১০ লক্ষ টাকা, ডিএফএ রাঙ্গামাটি ২ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করছে। তাছাড়া অংশগ্রহনকারী প্রতিটি দলকে ৮০ হাজার টাকা করে প্রদান করা হবে।

দীর্ঘ দিন অনিয়মিত থাকার পর চলতি বছর রাঙ্গামাটিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ১ম বিভাগ ফুটবল লীগ। এবারের এ লীগে প্রথম পর্যায়ে দুটি গ্রুপে ১২টি দল অংশ নিচ্ছে। দ্বিতীয় পর্যায়ে দুটি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দল নিয়ে সুপার লীগ পদ্ধতিতে পরিচালিত হবে। সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দল চ্যাম্পিয়ন হিসেবে বিবেচিত হবে। উদ্বোধনী খেলায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ছদক ক্লাব বনাম উইং ষ্টার স্পোর্টিং ক্লাব একে অপরের মুখোমুখি হবে।
সংবাদ সম্মেলনে জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তাবৃন্দ এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার স্থানীয় সংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।