ব্রেকিং নিউজ

বিলাইছড়িতে পাংখোয়া ট্রাইবাল ভিলেজ উদ্বোধন করলেন চট্টগ্রাম জিওসি!

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ির পাংখোয়া পাড়ায় ট্রাইবাল ভিলেজ উদ্বোধন করলেন, ২৪ পদাতিক ডিভিশনের চট্টগ্রাম এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এসএম মতিউর রহমান। সোমবার দুপুরে বিলাইছড়ি উপজেলার দুর্গম পাহাড়ি এলাকা পাংখোয়া পাড়ায় ট্রাইবাল ভিলেজ উদ্বোধনের পর স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, হেডম্যান, কারাবারি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন জিওসি।

প্রথমে সেনাবাহিনীর অর্থায়নে ‘পাংখোয়া ট্রাইবাল ভিলেজ’ নামে পাংখোয়াপাড়ার স্থানীয় জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে নির্মিত বিনোদন স্পট ও প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন জিওসি। পরে পাংখোয়া জনগোষ্ঠীর তরুণ-তরুণীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। এরপর স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, হেডম্যাান, কারবারি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ উপস্থিত লোকজনের সঙ্গে আয়োজিত মতবিনিময়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। এ সময় রাঙ্গামাটি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ রেয়াদ মেহমুদ, বিলাইছড়ি জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল শেখ আবদুল্ল্যাহ, সেকেন্ড ইন কমান্ড মেজর আরিফ উজ্জামান, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রবীন্দ্র লাল চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া, উপজেলা চেয়ারম্যান শুভমঙ্গল চাকমা, স্থানীয় হেডম্যান এংলিয়ানা পাংখোয়াসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রামের জিওসি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর একটি পক্ষ সরকারের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করেছে। কিন্তু বর্তমানে অপর একটি পক্ষ পার্বত্য চট্টগ্রামকে স্বাধীন রাষ্ট্র বানানোর নীলনকশা তৈরি করছে। তাদের এ স্বপ্ন কখনও সফল হবে না। সর্বশক্তি দিয়ে তাদের এ ধরনের নীলনকশা ধুলিস্যাৎ করে দেয়া হবে এবং ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জিওসি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ও সম্প্রীতি রক্ষায় সেনাবাহিনী সব সময় আন্তরিক এবং সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এখানে শান্তি-সম্প্রীতি বিনষ্টকারী কেউ পার পাবে না। যে কোনো সন্ত্রাস কঠোর হস্তে দমন করা হবে। তিনি পাংখোয়াপাড়ার জনগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক উন্নয়নে ৬ লাখ টাকা অনুদান প্রদানের ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, একটি গোষ্ঠী পার্বত্য চট্টগ্রামকে নিয়ে আলাদা রাষ্ট্র গঠনের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। কিন্তু তাদের এ ষড়যন্ত্র কখনও সফল হবে না। পার্বত্য চট্টগ্রামকে আলাদা করার নীলনকশা সর্বশক্তি দিয়ে প্রতিহত করা হবে।