ব্রেকিং নিউজ

বান্দরবানে ১৫ শিক্ষকের ডেপুটেশন বাতিল করে গ্রামের মূল বিদ্যালয়ে ফেরত!

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি ও লামা উপজেলার ১৫ জন সহকারী শিক্ষকের ডেপুটেশন বাতিল করে গ্রামের মূল বিদ্যালয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের ২৯.২৩৫.০০৪.৩৩.০৯.০১৮ (অংশ) ২০১৭-১০৩৬নং স্মারকের নির্দেশে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো: শহীদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানা গেছে।

জেলা পরিষদের এই সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন শিক্ষানুরাগীরা। এর মধ্যে দুই উপজেলার ১২টি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রয়েছেন। তারা দীর্ঘদিন থেকে ডেপুটেশনে দূর্গম এলাকার স্কুল থেকে সুবিধাজনক স্থান উপজেলা সদরের স্কুলে শিক্ষকতা করছিলেন। ডেপুটেশনে থাকা বাকী ৬-৭জন শিক্ষককেও নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরত পাঠানোর দাবী জানিয়েছেন তাঁরা।

প্রাপ্ত তথ্য জানা গেছে, ডেপুটেশনে থাকা মাইচিং চাক নাইক্ষ্যংছড়ি মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে দোছড়ি ইউনিয়নের লেমুছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফেরত গেছেন। একইভাবে মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে আয়েশা ছিদ্দিকা চাকঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, জেসমিন আক্তার ও আফিফা আক্তার ভাল্লুকখাইয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, নূর মোহাম্মদ শফিকুর রহমান দক্ষিণ চাকঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, রিক্তা আরা বেগম কে চেয়ারম্যানপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, বর্ডার গার্ড সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে থেকে শামসুন নাহারকে চাক হেডম্যানপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, মোহাম্মদ ইয়াছিন আরাফতকে মারোগ্যপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, তাংরা বিছামারায় কর্মরত সুখী মার্মাকে রেজু বৈদ্যছড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, উত্তর চাকঢালায় কর্মরত উম্মে সালমাকে লেমুছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, দিলরুবা সোলতানাকে গয়ালমারা চাকঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, আদর্শগ্রামে কর্মরত ফাতেমা বেগমকে পশ্চিম ছাগলখাইয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, তাংরা বিছামারা থেকে মো: শাহ নেওয়াজকে ফুলতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, আদর্শগ্রাম থেকে রেহেনা আক্তার রিনাকে বাহিরমাঠ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং চাক হেডম্যানপাড়া থেকে মো: জয়নাল আবেদীনকে গয়ালমারা চাকঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বান্দরবান জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: শহীদুল ইসলাম বলেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান

মহোদয়ের প্রেরিত পত্র অনুযায়ী নাইক্ষ্যংছড়ি ও লামা উপজেলার ১৫জন সহকারী শিক্ষকের ডেপুটেশন বাতিল করে নিজ নিজ কর্মস্থলে ফেরত পাঠানো হয়েছে। ৩১ অক্টোবরের মধ্যে তাদের নিজ কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার কথা। এছাড়াও অন্যান্য শিক্ষকদের বিষয়ে তথ্য নিয়ে চেয়ারম্যান মহোদয়ের পরামর্শক্রমে ডেপুটেশন বাতিল করা হবে।

প্রসঙ্গত, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলীর নীতিমালা না মেনে দীর্ঘদিন যাবত নাইক্ষ্যংছড়ি ও লামা উপজেলার অন্তত ২০-২২জন শিক্ষক ডেপুটেশনে রয়েছেন। এতে করে তাদের নিজ কর্মস্থল স্কুলগুলোর শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। যারমধ্যে সম্প্রতি ১৫জনের ডেপুটেশন বাতিল করা হয়েছে।