ব্রেকিং নিউজ

পানছড়িতে ছাত্রলীগ সম্পাদকের মহানুভবতা!

॥ পানছড়ি প্রতিনিধি ॥

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলা হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর মাঝে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত বৃদ্ধকে উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক জহিরুল আমিন রুবেল এর প্রচেষ্টায় জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার সু-ব্যবস্থা করার পরও পরপারে চলে গেল আহত বৃদ্ধ।

জানাযায়, আচাই মহাজন পাড়ার রুইলা অং মারমা‘র ছেলে মুংপে মারমা (৭০) মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে অজ্ঞাতনামা দু’জন ব্যাক্তি পানছড়ি উপজেলা হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। এমন অবস্থায় আহতকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিলেও বৃদ্ধর অবস্থা গুরুতর দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উচ্চতর চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা জরুরী মনে করে। তবে রুইলা অং মারমা‘র ছেলে-মেয়ে বা নিকটাত্মীয় না থাকায় দীর্ঘ প্রায় ৩/৪ ঘন্টা ধরে পড়ে ছিল হাসপাতালের বিছানায়। এই করুন অবস্থা দেখে ডাঃ বিদর্শী চাকমা, পানছড়ি থানার সাব ইন্সপেক্টর জসিম উদ্দিন ও মহিউদ্দিন এর সহযোগীতা ও পরামর্শে উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক জহিরুল আমিন রুবেল নিজ উদ্যেগেই এম্বুলেন্স যোগে নিয়ে যায় খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে বিকাল ৪টায় বৃদ্ধ মারা গেছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ার করা হয়নি। ঘাতক জীপ ও চালকের সন্ধান চলছে।
দেশ ও জাতি এবং সাধারণ মানুষের কল্যাণে ছাত্রলীগ অতীতেও কাজ করেছে, বর্তমানেও কাজ করছে এবং আগামীতেও করবে। মানবিক কাজের জন্য ছাত্রলীগ সব সময় তৈয়ারী আছে এবং থাকবে উল্লেখ করে পানছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সম্পাদক বিজয় কুমার দেব বলেন, মানবিক কাজে সবাই এগিয়ে আসা দরকার।