রাজস্থলী মৈত্রী বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসব সম্পন্ন!

॥ রাজস্থলী প্রতিনিধি ॥

রাঙ্গামাটির রাজস্থলী মৈত্রী বিহারে অত্যন্ত আনন্দ উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে গৌতম বুদ্ধের মহা উপাসিক বিশাখা কর্তৃক প্রবর্তিত নিয়মে ৩৮তম কঠিন চীবর দান উৎসব শনিবার বিহার প্রাঙ্গনে সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রুবার চরকার মাধ্যমে তুলা থেকে সুতা বের করার পর সুতায় রং করা তারপর বেইন, কোমর তাত বুনন ভিক্ষু সংঘের সূত্র পাঠের মাধ্যমে চীবর দানোৎসব শুরু হয়। এ চীবর তৈরীর ক্ষেত্রে শনিবার ভিক্ণু সংঘের দান করার মধ্য দিয়ে কঠিন চীবর দানোৎসব সম্পন্ন হয়। এ উৎসবকে কেন্দ্র করে এলাকার বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা পঞ্চশীল গ্রহন সকল প্রানীয় মঙ্গল কামনা করে সমবেত প্রার্থনা ভিক্ষু সংঘ কর্তৃক ধর্মীয় দেশনা প্রদান করেন।

এসময় আরো বুদ্ধমুর্তি দান, অষ্ট পরিষ্কার দানসহ নানাবিধ দান করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রথম ধর্মীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে প্রধান ধর্মদেশক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভদন্ত সুমেধানন্দ মহাথের, অধ্যক্ষ ওয়াগ্গা জন কল্যানবৌদ্ধ বিহার কাপ্তাই এবং প্রধান অতিথি ছিলেন, ভদন্ত শ্রদ্ধালঙ্কার মহাথের সভাপতি পার্বত্য ভিক্ষু সংঘ বাংলাদেশ, অধ্যক্ষ সংঘারাম বৌদ্ধ বিহার ভেদভেদি, রাঙ্গামাটি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, ভদন্ত উৎ কোবিধা মহাথের, অধ্যক্ষ তৈনগাঁও বৌদ্ধ বিহার আলিকদম, বান্দরবান। ধর্মীয় দেশনাকালে ভিক্ষুগণ সকল প্রাণীর মুক্তির লাভের উদ্দেশ্যে বলেন এ কঠিন চীবর দানের প্রভাবে সবখানে শান্তি উদয় হবে এবং সকল প্রাণী দুঃখ হতে মুক্তি লাভ করবে। নির্বান লাভী হতে হলে দানশীল ভাবনা ছাড়া বিকল্প নেই। সবাইকে ধর্মীয় চেতনায় উদ্ভুদ্ধ হয়ে হিংসা দ্বেষ লোভ, হানাহানি পরিহার করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান উথিনসিন মারমা, ১নং ঘিলাছড়ি মৌজার হেডম্যান দীপময় তালুকদার, ১নং ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সুশান্ত প্রসাদ তঞ্চঙ্গ্যা। অনুষ্ঠানে উপস্থাপনায় ছিলেন শিক্ষক শ্রদ্ধা শংকর তঞ্চঙ্গ্যা।