বিএনপি’র ২টিসহ রাঙামাটিতে জমা পড়েছে ১২ মনোনয়নপত্র!

॥ আলমগীর মানিক ॥

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে অংশ নেওয়ার লক্ষ্যে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে সর্বমোট ১২টি মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছে প্রার্থীরা। রাঙামাটি জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ মামুন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, বুধবার সকাল থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনসহ স্বতন্ত্র কৌটায় এসব মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। বুধবার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দেওয়ার শেষ দিনে রাঙামাটিতে জমা পড়েছে মোট ৯টি মনোনয়ন।

এরআগে মঙ্গলবার দুপুরে রাঙামাটির বর্তমান স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার ও শরৎ জ্যোতি চাকমা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে নিজেদের মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন বলে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানাগেছে, বুধবার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী দীপংকর তালুকদার, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মনোনীত দুই প্রার্থী মনিস্বপন দেওয়ান ও এ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ান, জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত প্রার্থী এ্যাডভোকেট পারভেজ তালুকদার, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন কর্তৃক মনোনীত প্রার্থী মোঃ জসিম উদ্দিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আশিষ দাশ গুপ্ত, ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী শান্তি দেব চাকমা, স্বতন্ত্র প্রার্থী সচিব চাকমা, স্বতন্ত্র প্রার্থী অমর দাশ এর পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া হয়েছে।

এরআগে জেএসএস এর মনোনীত স্বতন্ত্র প্রার্থী ঊষাতন তালুকদার, শরৎ জ্যোতি চাকমা, বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টি মনোনীত জুঁই চাকমা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা একেএম মামুনুর রশিদ মামুন।

জেলা প্রশাসকের পাশাপাশি রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা জনাব একেএম মামুনুর রশিদ প্রতিবেদককে বলেন, কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ এবং উৎসবমূখর পরিবেশে প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, নির্বাচনী আচরণ বিধি নিয়ে কারো পক্ষ থেকে কোনো ধরনের লিখিত বা মৌখিক অভিযোগ পাইনি। তিনি বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশনের পক্ষথেকে প্রাপ্ত নির্দেশনার আলোকে উৎসব মুখর পরিবেশে রাঙামাটিস্থ ২৯৯ নং আসনে অবাধ সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বদ্ধপরিকর। কোনো ধরনের আইনের ব্যতয় ঘটানোর চেষ্ঠা করলে সেই ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করে রেখেছি।

বুধবার সকাল থেকে মনোনয়ন জমা দিতে আসা প্রার্থীরা জানিয়েছেন, চলমান পরিস্তিতিতে এখনো পর্যন্ত রাঙামাটিতে নির্বাচনের পরিবেশে মোটামুটি ভালো আছে। তবে একটি অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে অত্রাঞ্চলে অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে আরো কঠোর অবস্থান নিতে হবে। অস্ত্র-গুলি উদ্ধারে চলমান অভিযান আরো জোরদার করতে হবে।