দেশের প্রথম লাভ পয়েন্ট রাঙামাটিতে উদ্বোধন : লাভ লকে ভালোবাসার তালা লাগিয়ে চাবি ফেলুন কাপ্তাই হ্রদে

॥ আলমগীর মানিক ॥

অবশেষে দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে পর্যটক দম্পতি আলাউদ্দিন-লীমা স্মরণে স্থাপিত হলো লাভ পয়েন্ট। ২০১৪ সনের ১৯ মার্চ কাপ্তাই লেকে বেড়াতে গিয়ে ঝড়ের কবলে পড়ে লেকের পানিতে ডুবে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছিলো এই দম্পতির। ৩দিন পরে আমেরিকা প্রবাসী আলাউদ্দিন পাটোয়ারী ও তার স্ত্রী আইরিন লিমা উভয়েই জড়িয়ে ধরা থাকা নিথর দেহ কাপ্তাই লেক থেকে উদ্ধার করে নৌ বাহিনী, পুলিশ-সেনাবাহিনী ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা।

স্বামী স্ত্রীর এমন মর্মান্তিক মৃত্যু একে অপরকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত জড়িয়ে ধরে শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত বাঁচার চেষ্টা করা একটি বিরল ঘটনা হিসেবে আজও চিত্রিত হয়ে আছে রাঙামাটি তথা পুরোদেশে। পর্যটক দম্পতি লীমা-আলাউদ্দিনের সেই বিরল ভালোবাসাসহ পৃথিবীর সকল ভালোবাসার মানুষদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাঙামাটির পলওয়েল পার্কে নির্মিত হয়েছে “লাভ পয়েন্ট”। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে স্মৃতিময় লাভ পয়েন্ট উদ্বোধন হয়েছে বৃহস্পতিবার বিকেলে। উদ্বোধন করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এর চেয়ারম্যান পাহাড়ের সন্তান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা-এনডিসি।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এর ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, রাঙামাটি পুলিশ সুপার আলমগীর কবির, উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মুজিবুল আলম, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ খোরশেদ আলম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ নোমানসহ উদ্বর্তন কর্মকর্তাগণসহ বিপুল পরিমান আগত দর্শনার্থী এসময় উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনের পরপরই নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা ও তার সহধর্মিনী অনামিকা ত্রিপুরা লাভ পয়েন্টে তালা লাগিয়ে চাবি কাপ্তাই লেকের পানিতে ছুঁড়ে ফেলে ফেলে ‘লাভপয়েন্ট’ এর ‘লাভ লক’ কার্যক্রমের সূচনা করেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা-এনডিসি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভালোবাসার স্মারক থাকলেও বাংলাদেশে এটাই প্রথম। এর মাধ্যমে নিহত দম্পতির প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা প্রদর্শনের পাশাপাশি পৃথিবীর সব ভালোবাসাকেও স্মরণ করতে চাই। নতুন প্রজন্ম ও দেশের প্রত্যেক মানুষের ভালোবাসার বন্ধন যাতে অটুট থাকে তার জন্য আলাউদ্দিন লিমার স্মৃতির উদ্দেশ্যে লাভ পয়েন্ট করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এই লাভ পয়েন্টের লাভ লকে তালা মেরে হ্রদের পানিতে চাবি ফেলে দিবে। যাতে তাদের ভালোবাসা চিরস্থায়ী হয়। আগামী দিন গুলোতে লাভ পয়েন্ট রাঙ্গামাটির পর্যটন সেক্টরে নতুন মাত্রা যোগ করবে মন্তব্য করে নব বিক্রম বলেন, রাঙামাটিতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা যাতে স্থানটি দেখতে আসেন ও উপভোগ করেন, সে জন্য স্থানটিকে ঘিরে কিছু বড় পরিকল্পনাও বাস্তবায়ন করতে চাই আমরা।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ রাঙামাটিতে বেড়াতে এসে কাপ্তাই হ্রদের জলে ডুবে যান আমেরিকাপ্রবাসী আলাউদ্দিন- আইরিন সুলতানা লিমা দম্পতি। তাদের বোট ডুবির ঘটনার তিনদিন পর ২২ মার্চ সকালে ডিসি বাংলো এলাকায় দম্পতির মরদেহ একই সাথে ভেসে উঠে। পলওয়েল পার্কের ঐ স্থানটিকে স্মরনীয় করে রাখতে সেসময় উক্ত স্থানটি পরিদর্শন করে সেটিকে লাভ পয়েন্ট হিসাবে ঘোষণা করেছিলেন সেসময়ে পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা নববিক্রম কিশোর ত্রিপুরা-এনডিসি। তারই একান্ত আগ্রহেই অবশেষে পলওয়েল ন্যাচার পার্কের উক্ত স্মরনীয় স্থানটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে দেশের প্রথম ‘লাভ পয়েন্ট’ নির্মাণ করা হয়েছে।