পাহাড়ের প্রথাগত নিয়মের প্রতি লক্ষ্য রেখে বাহিনীর মূল কাঠামোয় দায়িত্ব পালনে নবীনদের নির্দেশনা দিলেন এসপি আলমগীর কবির

॥ আলমগীর মানিক ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম একটি বিশেষায়িত অঞ্চল। এই অঞ্চলে বিশেষ ধরনের আইনের প্রচলন রয়েছে যা কিনা সমতল থেকে সম্পূর্ন ভিন্ন ধরনের। এই আইনগুলো সম্পর্কে সম্যক ধারনা নিয়ে সেগুলো পজেটিভ আকারে গ্রহণ করে সেই মোতাবেক রাষ্ট্র কর্তৃক অর্পিত দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট থাকতে নবীন পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন রাঙামাটির পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর কবির।

ট্রেনিং শেষে বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে চাকুরি জীবন শুরুতে যোগদান করা নতুন ৪২০ জন নবীন পুলিশ সদস্যকে বরণ করে নেওয়ার সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার আলমগীর কবির আরো বলেন, পাহাড়ের কৃষ্টি-সংস্কৃতি তথা অত্রাঞ্চলের প্রথাগত আইন সম্পর্কে সম্যক ধারনা গ্রহণ পূর্বক বাহিনীর মূল কাঠামোর মধ্যে থেকে নিজেদের উপর রাষ্ট্রীয় অর্পিত দায়িত্ব সতর্কতার সহিত সততার দৃষ্টান্ত রেখে পালন করতে হবে। তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ দমন হচ্ছে বর্তমানে পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের অন্যতম প্রধান একটি চ্যালেঞ্জ।

এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নিজেদের সর্বোচ্চটুকু ব্যবহার করে কাজ করতে হবে মন্তব্য করে নিজ বাহিনীর নবীন পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে পুলিশ সুপার বলেন, নবীন তোমরা যারা দেশ সেবার ব্রত নিয়ে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেছো তাদের মনে রাখতে হবে দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে হবে।

একটি বাহিনীর শৃঙ্খলা খুবই বড় একটা বিষয়, উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের বৈধ আদেশ মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই মন্তব্য করে পুলিশ সুপার বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু সেটা তোমাদের কাজে প্রমান করতে হবে। তোমাদের আচার-আচরনের মাধ্যমেই নতুন প্রজন্মের কাছে পুলিশের গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পায় এমন নজির সৃষ্ঠি করে দেশ ও জনগণের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করো।

জেলার নিউ পুলিশ লাইন্স (সুখীনীলগঞ্জ) এ “মাসিক কল্যাণ সভা ও নবাগত পুলিশ সদস্যদের বরণ” অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কাপ্তাই সার্কেল) মোঃ জুনায়েদ কাউছার এর সঞ্চালনায় কল্যাণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সহকারী পুৃলিশ সুপার ইউসুফ সিদ্দিকী, পিপিএম, সহকারী পুলিশ সুপার রনজিত কুমার পালিত, সহকারী পুলিশ সুপার (শিক্ষানবিশ) মোঃ হাসান তারেক, মেডিকেল অফিসার (পুলিশ হাসপাতাল, রাঙামাটি) ডাঃ অমল চাকমা, এমবিবিএস (রাজ)সহ সকল থানার অফিসার ইনচার্জ এবং রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পুলিশের অফিসার ও সদস্যবৃন্দ।

এরআগে অনুষ্ঠানের শুরুতে সদ্য যোগদানকৃত পুলিশ সদস্যদেরকে ফুলের শুভেচ্ছা, ভালো কাজের জন্য পুরষ্কার প্রদান, কর্তব্যরত অবস্থায় আহত পুলিশ সদস্যদের আর্থিক সাহায্য প্রদান এবং পুলিশ সদস্যদের সাথে তাদের সুবিধা অসুবিধার বিষয় আলোচনা করেন পুলিশ সুপার। পরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় “নবাগত পুলিশ সদস্যদের বরণ” উপলক্ষ্যে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা ও প্রীতিভোজ এর আয়োজন করা হয়। উক্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশের সাংস্কৃতিক দল নৃত্য, গান, কৌতুক প্রভৃতি পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে নবীন সদস্যদের গান গেয়ে শোনান পুলিশ সুপার আলমগীর কবির।