লামায় মালবাহী মিনি ট্রাক দূর্ঘটনায় ৪ জন গুরুতর আহত!

॥ লামা প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানের লামায় মালবাহী একটি মিনি ট্রাক দূর্ঘটনায় ৪ জন গুরুতর আহত হয়েছে। সোমবার (০৩ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় লামা-চকরিয়া সড়কের ইয়াংছা টেকে এই দূর্ঘটনা ঘটে। দূর্ঘটনায় পতিত মিনি ট্রাকটি কক্সবাজার হতে ঢেউটিন বোঝাই করে লামা বাজার আসছিল। পথের মধ্যে ইয়াংছা টেক নামক স্থানে ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারায়। এসময় রাস্তার পাশের বড় রেইনট্রি কড়ি গাছের সাথে ধাক্কা লেগে দুমড়ে মুচড়ে যায়।

আহত মো. রিদুয়ান (২৯) লামা বাজারের টিন ব্যবসায়ী। সে বমুবিলছড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়ার খালেদ আহমদ সওদাগরের ছেলে। গুরুতর আহত ট্রাকের ড্রাইভার, হেলপার ও সহযোগী তিনজনকে দ্রুত চিকিৎসায় জন্য চকরিয়া হাসপাতালে পাঠানো কারণে তাদের পরিচয় জানা যায়নি। তাদের বাড়ি কক্সবাজার পৌরসভায় বলে জানা গেছে। গাড়ির নাম্বার চট্টমেট্রো-ন, ১১-৫৪৩৯। ইয়াংছা বাজারের বাসিন্দা নাজিম উদ্দিন বলেন, গাড়ি দূর্ঘটনার বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে স্থানীয় ইয়াংছা বাজারের লোকজন, নিকটবর্তী ইয়াংছা পুলিশ চেকপোস্টের সদস্য ও ইয়াংছা আর্মি ক্যাম্পের সেনা সদস্যরা উদ্ধার কাজে এগিয়ে আসে। কিছুক্ষণ পরেই উদ্ধার কাজে অংশ নেয় লামা ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম। সকলে ট্রাকটির ইঞ্জিন বক্স কেটে আহতদের বের করে।

গাড়ির ড্রাইভার, হেলপার ও সহযোগী ৩ জনের বাড়ি কক্সবাজারে হওয়ায় তাদের কেউ চিনতে পারেনি। ড্রাইভারের হাত পা ভেঙ্গে গেছে ও প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। ঢেউটিনের মালিক ব্যবসায়ী রিদুয়ান কে ইয়াংছা বাজারের একটি ফার্মেসিতে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে লামায় নিয়ে গেছে তার আত্মীয় স্বজনরা। আহত রিদুয়ান বলেন, ড্রাইভার এই রোডের জন্য নতুন ছিল। অন্ধকারে সে রাস্তার বাঁক দেখতে পায়নি। মোড়ে এসে ট্রাকটি গাছের সাথে ধাক্কা লেগে দুমড়ে মুচড়ে যায়। লোকজন আমাদের ইঞ্জিন বক্স কেটে উদ্ধার করে। ড্রাইভার খুব জোরে গাড়ি চালানোর কারণে দূর্ঘটনা ঘটেছে। ইয়াংছা পুলিশ চেকপোস্টের দায়িত্বরত পুলিশের এএসআই বিকাশ বলেন, আমরা শব্দ শোনার সাথে সাথে দৌড়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।