লক্ষীছড়িতে প্রথমবারের মত শান্তিচুক্তি দিবস পালিত!

॥ লক্ষীছড়ি প্রতিনিধি ॥
০২ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে লক্ষীছড়ি উপজেলায় পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২১তম বর্ষপূর্তি উদযাপন করা হয়। প্রথমবারের মত দূর্গম লক্ষীছড়ি উপজেলায় এ  দিবস উদযাপিত হয়। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে লক্ষীছড়ি উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় লক্ষীছড়ি জোন কর্তৃক সকাল ৯টায় একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালীর আয়োজন করা হয়।
র‌্যালীতে উপস্থিত ছিলেন জোন কমান্ডার লক্ষীছড়ি লেঃ কর্ণেল মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, পিএসসি, জি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাহিদ ইকবাল, লক্ষীছড়ি থানা নির্বাহী কর্মকর্তা, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান অংগ্যপ্রু মারমা, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বারসহ স্থানীয় জনসাধারণ, স্থানীয় স্কুল কলেজের শিক্ষক/শিক্ষিকা ও ছাত্র/ছাত্রীবৃন্দ। র‌্যালীটি লক্ষীছড়ি উপজেলা মাঠ থেকে শুরু হয়ে পুনরায় লক্ষীছড়ি উপজেলা মাঠ প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। এরপর শান্তি চুক্তি দিবস উপলক্ষে দিবসটির তাৎপর্যকে আরো মহিমান্বিত করার লক্ষ্যে উপজেলা মাঠ প্রাঙ্গনে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন লক্ষীছড়ি জোনের জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, পিএসসি, জি। এছাড়াও সভায় অন্যান্য গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য প্রদান করেন। জোন কমান্ডার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে বর্তমানে পার্বত্য এলাকায় শিক্ষা, যোগাযোগ, স্বাস্থ্য সর্বোপরি আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, পার্বত্য এলাকায় শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, এই শান্তি চুক্তির ব্যাপ্তি ও প্রসারের জন্য পাহাড়ী-বাঙ্গালী, নিরাপত্তাবাহিনী, বেসামরিক প্রশাসন, সরকারী ও বেসরকারী বিভিন্ন সংস্থাগুলোকে একযোগে কাজ করতে হবে। তিনি শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও সন্ত্রাসমুক্ত দেশ গড়তে সকলের অগ্রনী ভূমিকা পালন আবশ্যক বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। আলোচনা সভা শেষে লক্ষীছড়ি জোন কর্তৃক আয়োজিত “”শান্তি চুক্তি ও বাংলাদেশ” শীর্ষক রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
পরর্বর্তীতে একই দিন বিকাল সাড়ে ৩টায় লক্ষীছড়ি জোন কর্তৃক লক্ষীছড়ি ফুটবল মাঠে নিরাপত্তা বাহিনী বনাম স্থানীয় জনগণ কর্তৃক একটি প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়। এ খেলায় স্থানীয় জনগণ নিরাপত্তা  বাহিনীকে ২-০ গোলে পরাজিত করে। জোন কমান্ডার অংশগ্রহণকারী সকল খেলোয়াড়দের মাঝে সৌজন্য উপহার বিতরণ করেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় এবং লক্ষীছড়ি জোন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে উপজেলা মাঠ প্রাঙ্গনে লক্ষীছড়ি মিউজিক স্কুল, লক্ষীছড়ি কলেজ, একযোদা ভালেদী সংঘ ক্লাব, তুমবাজ সঙ্গীত স্কুল এবং লক্ষীছড়ি জোনের যৌথ পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সম্প্রীতি কনসার্টের আয়োজন করা হয় । এতে লক্ষীছড়ি উপজেলার দূর দুরান্ত থেকে আগত প্রায় ১৫০০-২০০০ মানুষ এ অনুষ্ঠান উপভোগ করে। এছাড়াও ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখ বিকাল ৪টায় লক্ষীছড়ি উপজেলা অডিটরিয়ামে একটি চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।