একবছরেও জুরাছড়ির আঃলীগ নেতা অরবিন্দু হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি প্রশাসন!

॥ স্মৃতিবিন্দু চাকমা – জুরাছড়ি ॥

৫ ডিসেম্বর ২০১৭ সালে জুরাছড়ি আওয়ামীলীগ নেতা অরবিন্দু চাকমা দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন। জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে জেলা পরিষদ বিশ্রামাগারে অরবিন্দু চাকমা’র হত্যার বিচারের দাবীতে স্মরণ সভায় প্রবর্তক চাকমা সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি চারু বিকাশ চাকমা, চিরনজীব চাকমা, আওয়ামীলীগের সাবেক উপদেষ্টা কালাচান চাকমা সহ ছাত্রলীগ যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

স্মরণ সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি জ্ঞানমিত্র চাকমা’র সঞ্চালনায় জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা ২৯৯নং আসনের সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদারকে সমালোচনা করে বলেন, বিগত পাঁচটি বছরে এলাকায় কোন উন্নয়নমূলক কাজ দেখাতে পারেননি তাই আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল ভয়ভীতি পরিহার করে নৌকা প্রতীক দীপংকর তালুকদারকে বিজয়ী করার আহব্বান করেন। এসময় তিনি আরো বলেন, একটি বছর পেরিয়ে গেলো এখনো পর্যন্ত অরবিন্দু হত্যাকারীদের প্রশাসন গ্রেপ্তার করতে পারেনি দ্রুত অভিযান চালিয়ে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহব্বান জানান।

আওয়ামীলীগ নেতা চারু বিকাশ চাকমা বলেন, অরবিন্দু চাকমা ছিলেন একজন সৎ আদর্শবান ব্যক্তি।তিনি সমাজে কেউ যদি বিপদে পড়লে দ্রুত সেখানে গিয়ে উপকার করার চেষ্টা করতেন এবং শিক্ষার জন্য সবসময় সচেতন ব্যক্তি ছিলেন বলে আখ্যায়িত করেন। প্রবর্তক চাকমা বলেন, অরবিন্দু চাকমা মরেও অমর আজীবন বেচেঁ থাকবেন দল তথা এলাকার জনগণের মাঝে।প্রবর্তক চাকমা আরো জানান, অস্ত্র দিয়ে কখনো কিছু সমাধান হয়না, ভালোবাসা দিয়ে মানুষের হৃদয় জয় করতে হবে এজন্য ২৯৯ নং আসনের নৌকা মনোনীত প্রার্থী দীপংকর তালুকদারকে সকলে সম্মলিত ভাবে ভোট দেওয়ার জন্য এলাকার আপামর জনসাধরণের মাঝে আহব্বান করেন। এছাড়া বক্তব্য রাখেন সিন্দু প্রিয় চাকমা, তপন কান্তি দে।