অন্ধকার হতে আলোর পথে যাত্রাঃ বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ!

॥ সৌরভ দে ॥

১০ জানুয়ারী বাংলাদেশের ইতিহাসে এক অন্যতম ঐতিহাসিক দিন। ১৯৭২ সালের আজকের এইদিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিজের স্বপ্নের স্বাধীন দেশে ফিরেছিলেন। একাত্তরে রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের পর শহীদের রক্তস্নাত বাংলার মাটি ও মানুষ এই দিন ফিরে পেয়েছিল হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সন্তান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

“অন্ধকার হতে আলোর পথে যাত্রা” নিজের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনকে ঠিক এই নামে অখ্যায়িত করেছিলেন জাতির জনক। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হলেও যার আহবানে সাড়া দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন মুক্তিযোদ্ধারা, সেই অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন পাকিস্তানের কারাগারে। ফলে সোনার স্বাধীনতা এলেও নেতার অনুপস্থিতিতে অপূর্ণতা থেকেই গিয়েছিল। অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষা আর উৎকণ্ঠার অবসান ঘটিয়ে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারী বঙ্গবন্ধু স্বাধীন দেশের মাটিতে পা রাখেন। সেই থেকে দিনটি পালিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস হিসেবে।

প্রতি বছরের মতো এবারও দিবসটি পালন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ ও দলের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় রাঙ্গামাটিতেও দিবসটি পালিত হচ্ছে যথাযথ মর্যাদায়। বৃহস্পতিবার ১০ জানুয়ারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রাঙ্গামাটি ২৯৯ নং আসনের সদ্য নির্বাচিত সংসদ সদস্য সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন,  প্রতি বছর এই দিবসটি ঘটা করে পালিত হলেও এইবছর দিবসটির তাৎপর্য্য অনেক বেশি। এই বছরই দেশের জনগণ জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে টানা তৃতীয়বারের জন্য সরকার পরিচালনার দায়িত্ব অর্পণ করেছে। এতে করে বুঝা যায় স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি এদেশের মানুষের মন থেকে যতই বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করুক না কেন বঙ্গবন্ধু নামটি সবসময় এদেশের আপামর জনতার মনে যুগ যুগ ধরে অক্ষয় হয়ে থাকবে।

উক্ত সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হাজী কামাল উদ্দীন, সহ –সভাপতি নিখিল কুমার চাকমা, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক জসিম উদ্দীন বাবুল সহ ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ সহ আওয়ামীলীগের অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।