ব্রেকিং নিউজ

চন্দ্রঘোনায় ইয়াবাসহ আবাসিক হোটেলের মালিককে পুলিশে দিল স্থানীয় জনতা!

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
চন্দ্রঘোনায় ইয়াবাসহ এক আবাসিক হোটেলের মালিককে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। সোমবার (২১ জানুয়ারি) রাতে গোপন সংবাদে স্থানীয় জনতা তাকে ইয়াবা বিক্রিকালে আটক করে। এসময় তার কাছ থেকে ২৬ পিস ইয়াবা, ইয়াবা সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জাম পাওয়া যায়। তার নাম আজাহারুল ইসলাম (৩৫)। সে চন্দ্রঘোনা লিচুবাগান এলাকার মেঘনা বোর্র্ডিং এর মালিক ও একই এলাকার আহমদ নবীর পুত্র। সে দীর্ঘদিন ধরে আবাসিক হোটেল ব্যবসার আড়ালে এই ধরণের মাদক ব্যবসায় চালিয়ে আসছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয় জনতা। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দিয়ে মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) সকালে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।
চন্দ্রঘোনা এলাকার ব্যবসায়ী ও উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হাবিব বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মেঘনা বোর্ডিং এ আবাসিক হোটেলের আড়ালে অবৈধ পতিতা ব্যবসায় চালাতো বোর্ডিং মালিক আজাহারুল। স্থানীয়রা এই নিয়ে বেশ কয়েকবার তার বোর্ডিং বন্ধ করে দিয়েছিল। পরে স্ট্যাম্প দিয়ে তা পুনরায় চালু করেছে। চালু করেই সে আবারো আবাসিক হোটেলের আড়ালে পতিতা ব্যবসা শুরু করে। গোপন সংবাদে স্থানীয় উত্তেজিত আলেম-ওলামা, ব্যবসায়ী নেতা ও সচেতন মহল তার হোটেলের ভেতর গেলে তাকে ইয়াবা সেবন ও বিক্রিকালে হাতেনাতে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাঙ্গুনিয়া থানার উপপরিদর্শন ইসমাঈল হোসেন জুয়েল বলেন, ‘সোমবার রাতে স্থানীয় জনতার খবরে তাকে ২৬ পিস ইয়াবা ও সরঞ্জমাদি সহ আটক করে থানায় নিয়ে আসি। তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।