রাঙামাটিতে সপ্তাহব্যাপী এসএমই পণ্য মেলা শুরু

॥ আলমগীর মানিক ॥

স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত পণ্যের প্রসারসহ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের পন্যের নতুন বাজার সৃষ্টির লক্ষ্যে পাহাড়ের অর্থনীতির গতি সঞ্চারে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে সপ্তাহব্যাপী এসএমই পণ্যমেলা শুরু হয়েছে। শনিবার রাঙামাটি জিমনেসিয়াম প্রাঙ্গণে শুরু হওয়া এই মেলার উদ্বোধন করেছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ। স্থানীয় পণ্যের প্রচার ও প্রসার আর ক্রেতাদের নতুন নতুন পণ্য সর্ম্পকে পরিচিতি করতে এসএমই ফাউন্ডেশন ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

এসএমই পণ্যমেলা উপলক্ষে শনিবার (২ মার্চ) সকালে রাঙামাটিতে জেলা প্রশাসক কার্যালয় সম্মুখ থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জিমনেশিয়াম প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে মেলার শুভ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন শেষে কুমার সুমিত রায়ের হল রুমে এসএমই পণ্যমেলার উদ্দ্যোক্তা এবং বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তাগণ ও প্রতিনিধিদেরকে নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এস এম শফি কামাল, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য হাজী মোঃ কামাল উদ্দিন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য নিরুপা দেওয়ানসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, বর্তমান সরকার নির্দিষ্ট্য কিছু লক্ষ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশ যে অপ্রতিরদ্ধ গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে তার পিছনে সরকারের ভিশন আছে। আগামী ২০২১ ও ২০৩০ সালের মধ্যে এলজিজি বাস্তবায়ন এবং ২০৪০ সালের মধ্যে আমাদের দেশকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করা। এসব ভিশনের পিছনে একটা বিষয় কাজ করে সেটা হচ্ছে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি। আর এই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে দরকার কর্মসংস্থানের সৃষ্টি। আর কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করতে অন্যতম উপদায়ক হিসেবে কাজ করে আমাদের ক্ষুদ্র এবং মাঝারি আকারে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো।

তিনি আরো বলেন, কর্মক্ষম মানুষকে যদি কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে পারি তাহলে আমাদের এই মেলা আয়োজনের স্বার্থকতা। গ্রামের ও শহরের ক্ষুদ্র এবং মাঝারি শিল্প উদ্দ্যেক্তাদের সকলের সামনে তুলে ধরাই আমাদের মূল লক্ষ।
এসএমই ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ জানায়, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের প্রচার, প্রসার, বিক্রয় এবং স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাজার স¤প্রসারণ, এসএমই উদ্যোক্তাদের পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নসহ বিভিন্ন মহলের সৃজনশীল মতামত ও পরামর্শ গ্রহন করতেই এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

আলোচনা সভা শেষে জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ এবং উপস্থিত অন্যান্য অতিথিবৃন্দরা মেলায় অংশগ্রহণকারী স্টল গুলো পরিদর্শন করেন। জিমনেশিয়াম প্রাঙ্গনে বিভিন্ন পন্যসামগ্রী নিয়ে ৫০টি ষ্টল স্থান পেয়েছে। সপ্তাহব্যাপী এই মেলা প্রতিদিন সকাল দশটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলবে আর শুক্রবার (৮ মার্চ) সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই এসএমই পণ্য মেলার শেষ হবে।