আনারসের বিরুদ্ধে আচরন বিধি ভঙ্গের অভিযোগ নৌকার

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জেএসএস সমর্থিত (স্বতন্ত্র) আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অরুন কান্তি চাকমা’র নেতা-কর্মীরা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের প্রাণনাশের ভয় দেখিয়ে ঘরবাড়িসহ নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে দুরে সরিয়ে রাখার চেষ্টা করছে বলে অয়িযোগ করেছে নৌকার প্রার্থী রোমানের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট।

আনরসের কর্মীরা অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্ট করাসহ নির্বাচনী আচারণ বিধি লঙ্ঘন করছে বলে জেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবরে এ অভিযোগ করা হয়। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শহীদুজ্জামান মহসিন রোমানের পক্ষে তার প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট হাজী মুছা মাতাব্বর রোববার (১০ই মার্চ) জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিতভাবে এ অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পত্রে বলা হয়, আসন্ন মার্চ ২০১৯ অনুষ্ঠিতব্য রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস মার্কায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অরুন কান্তি চাকমা’র কর্মী ও সমর্থকরা নির্বাচনী আচারন বিধি ভঙ্গ করে শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে বিভিন্ন ইউনিয়ন ও কল্যানপুর এলাকায় আমাদের নৌকা প্রতীকে নির্বাচনী পোষ্টার ও ব্যানার ছিড়ে ফেলছে।

লিখিত অভিযোগ পত্রে নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মুছা, অবাধ ও নিরপেক্ষ ও প্রভাবমুক্ত নির্বাচনের স্বার্থে উপরোক্ত অভিযোগের সুষ্ঠ তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা রিটার্নিং অফিসারের সহযোগিতা কামনা করেন।
এদিকে নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট হাজী মুছা মাতাব্বরের দেওয়া অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রাঙামাটি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অরুন কান্তি চাকমা।

তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার নেতা-কর্মীরা কাউকে হুমকি দিয়েছে কিংবা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর পোস্টার ও ব্যানার ছিড়ে ফেলছে এমন কোন ঘটনা আমার জানা নেই এবং কোন নেতা-কর্মীকে আমি নির্দেশনাও দেইনি। কি কারণে? কোথায় তারা লাঞ্চিত কিংবা আচারণ বিধির লঙ্গন দেখেছে আমাদের জানা নেই।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা অভিযোগ দিতেই পারেন। পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ সবসময়ই থাকে। আমি শহরেরই আছি, এখাই প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছি আমি আমার নেতা-কর্মীরা।

নির্বাচনী প্রচারণায় আমার কোন অভিযোগ নেই উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, আমার নির্বাচনী প্রধান এজেন্ট রাঙামাটি সদরের কিছু ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্রের তালিকা জেলা রিটার্নিং অফিসারের নিকট জমা দিয়েছে। প্রচার-প্রচারণায় আমরা ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। তিনি উল্লেখ করেন, এখন পর্যন্ত নির্বাচনী পরিবেশ ভালো আছে, আশা করি, শেষ পর্যন্ত পরিবেশ ভালো থাকবে।