বাঘাইছড়িতে সেনাভিযানে অস্ত্রসহ চাঁদা উদ্ধারঃ মুহুর্মুহু অভিযানে বেকায়দায় আঞ্চলিক দলগুলো!

॥ বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি ॥
রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় ১৮ মার্চ আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পূর্ববর্তী যে কোন ধরণের সহিংসতা ও নাশকতা প্রতিহত করে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে পাহাড়ে চিরুণী অভিযান শুরু করেছে সেনাবাহিনী।
সাফল্যের চলমান ধারাবাহিকতায় বাঘাইছড়ির নয় কিলো এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরও একটি সফলতা অর্জন করলো সেনাবাহিনীর অভিযান দল। জানা যায়, ১৬ মার্চ নয় কিলো এলাকায় ইউপিডিএফ (প্রসীত) গ্রুপের একটি সশস্ত্র দল চাঁদা আদায় করার লক্ষ্যে অবস্থান করছে মর্মে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘাইছড়ি সেনা জোন কর্তৃক উক্ত অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান দল সন্ত্রাসীদের উপর  অভিযান পরিচালনা করলে গভীর জংগলের সুযোগে সন্ত্রাসীদল পালাতে সক্ষম হলেও পালিয়ে যাওয়ার সময় একটি ব্যাগ ফেলে যায়। পরবর্তীতে সন্ত্রাসীদের ফেলে যাওয়া ব্যাগ তল্লাশি করে একটি পিস্তল, ৪ রাউন্ড এ্যামুনেশন এবং নগদ ৫২৩২/- টাকা ও চাঁদা আদায়ের রশিদসহ কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।
জানা যায়, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠনগুলো ভোটারদের ভয়-ভীতি দেখানোসহ ব্যাপক চাঁদাবাজির পরিকল্পনা করছে। নিরাপত্তা বাহিনীও সন্ত্রাসীদের এই অপপরিকল্পনা নস্যাৎ করার জন্য, পাহাড়ে চিরুণী অভিযান শুরু করেছে। স্থানীয় জনগণ নিরাপত্তা বাহিনীর এই সাফল্যে উচ্ছ্বাস প্রকাশের পাশাপাশি চলমান এই চিরুণী অভিযান অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানায়।
এ প্রেক্ষিতে নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়,  অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসী গ্রেফতারের মাধ্যমে পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সেনাবাহিনীর পরিচালিত অভিযান চলমান থাকবে এবং এ ব্যাপারে স্থানীয় জনসাধারণের কাছে সহযোগীতাও চায় সেনাবাহিনী।