ব্রেকিং নিউজ

জাতীয় শিশু দিবসে গুইমারায় সেনাবাহিনীর উদ্যোগে শিশু চিকিৎসা ক্যাম্প

॥ মানিকছড়ি প্রতিনিধি ॥

জাতীয় দিবসে গুইমারা রিজিয়নের সিন্দুকছড়ি জোন কর্তৃক ১৭ মার্চ দিন ব্যাপি গুইমারায় আয়োজন করা হয়েছে শিশু চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম। জোনের অধিনস্থ সকল ইউনিয়ন থেকে অর্ধসহ¯্রাধিক শিশু নিয়ে অভিভাবকরা উপস্থিত হয়েছেন চিকিৎসা ক্যাম্পে।

সিন্দুকছড়ি জোন সূত্রে জানা গেছে, জোনের অধিনস্থ ৩ উপজেলা গুইমারা,রামগড় ও মানিকছড়ির তৃণমূলে বসবাসরত পাহাড়ী-বাঙ্গালীরা প্রতিনিয়ত চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত। ফলে ওইসব জনপদের শিশুরা বেড়ে উঠছে অপ-চিকিৎসা, অনাদর, অবহেলা ও অযত্নে। প্রাণঘাতী থেলাসেমিয়া(রক্তশুন্যতা)সহ নানাবিধ জটিল রোগে এখানকার শিশুরা বেড় উঠলেও সচেতনতার অভাবে অভিভাবকরা যথাসময়ে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসকের শরণাপন্ন করছে না। বিষয়টি সেনাবাহিনীর নজরে আসায় গুইমারা রিজিয়নের অধিনস্থ ১৪ ফিল্ড আর্টিলারীর অধিনায়ক লে.কর্ণেল রুবায়েত মাহমুদ হাসিব,পিএসসি এ বিষয়ে রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ.কে.এস সাজেদুল ইসলাম পিএসসি,জি এর পরামর্শে চট্টগ্রাম থেকে শিশু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. মাহমুদ আহম্মদ চৌধুরী(আরজু)র নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক নিয়ে এ আয়োজন।

সকাল সাড়ে ১০টায় গুইমারা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর কার্যালয়ে আেয়াজিত এ চিকিৎসা ক্যাম্পে চিকিৎসা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ.কে.এস সাজেদুল ইসলাম পিএসসি,জি। এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিন্দুকছড়ি জোন অধিনায়ক লে.কর্ণেল রুবায়েত মাহমুদ হাসিব,পিএসসি, উপ-অধিনায়ক মেজর মো. তৌহিদ সালাহ উদ্দীন, শিশু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. মাহমুদ আহম্মদ চৌধুরী(আরজু),উপজেলা চেয়ারম্যান উশেপ্রু মারমা, ইউপি চেয়ারম্যান মেমং মারমা,রেদাক মারমা, সাথোয়াই চৌধুরী, অফিসার ইনচার্জ বিদ্যুৎ বড়ুয়া, ও.সি তদন্ত মো.শফিকুল ইসলাম প্রমূখ। এ সময় প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন,আজ জাতীয় শিশু দিবসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সন্মানে শিশুদের জন্য বিশেষ এ আয়োজন। তিনি প্রয়াত জাতির জনকসহ সকল শহীদ,বুদ্ধিজীবি,মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মান জানান এবং শ্রদ্ধাভরে তাঁদের স্মরণ করেন। তিনি আরো জানান, পাহাড়ে শান্তি-শৃংখলার পাশাপাশি সকল সম্প্রদায়ের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করতে সেনাবাহিনী সর্বদা প্রস্তুত বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।

এর পর চিকিৎসা ক্যাম্পে শিশুদের নিয়ে আগত অভিভাবকদেও সামনে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করেন চিকিৎসকরা।