ব্রেকিং নিউজ

নিয়ন্ত্রণহীন পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে বাঘাইছড়িতে নির্বাচনী কর্মকর্তাসহ নিহত-৬ গুলিবিদ্ধ-৮

॥ আলমগীর মানিক ॥

আবারো রক্তের হোলি খেলায় মত্ত হয়ে উঠেছে পার্বত্যাঞ্চলের আঞ্চলিকদলীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। বেপরোয়া এই সশস্ত্র পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের ব্রাশ ফায়ারে এবার প্রাণ হারালো অন্তত ৬জন সরকারী আধা সরকারী চাকুরীজীবি। বাঘাইছড়ির নয়কিলোনামক স্থানে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে নিহতরা হলেন, প্রিজাইডিং কর্মকর্তা আব্দুল হান্নান, সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মোঃ তৈয়ব, পোলিং অফিসার আল আমিন, মো. আমির হোসেন গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্য(ভিডিপি) বিলকিস (৩৫) ও পথচারি মন্টু চাকমা।

নির্মম এই ঘটনায় তিনজন পুলিশ সদস্যসহ আরো অন্তত আটজন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গুরুত্বর আহত হয়েছে বলে প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন রাঙামাটির পুলিশ সুপার আলমগীর কবির। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের সকলকে হেলিকপ্টারযোগে চট্টগ্রাম সিএমএইচ এ পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন পুলিশ সুপার। সোমবার রাত ৮.৩৩ মিনিটের সময় প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে পুলিশ সুপার এই তথ্য জানিয়েছেন।

জানাগেছে, সরকারের নির্দেশে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করে ব্যালটবাক্সসহ কর্মকর্তাদের বহনকারি গাড়িতে ফেরার পথে দূর্গম পাহাড়ি রাস্তায় উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের অতর্কিত ব্রাশ ফায়ারে নির্মমভাবে নিহত করা হয়।
জানাগেছে, রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্ব পালন শেষে সাজেকের কংলাক থেকে ফেরার পথে ভোটগ্রহণকারী কর্মকর্তা ও আনসার-ভিডিপি সদস্যদের লক্ষ্য করে ব্রাশ ফায়ার করে।

এদিকে এই ঘটনায় পুরো রাঙামাটি জেলায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। জেলা শহরের এই ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা। মিছিল থেকে নির্মম এই ঘটনার সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে নেতৃবৃন্দ।

এদিকে রাত পৌনে নয়টার সময় বাঘাইছড়ির মাচালং পুলিশ ক্যাম্পে আবারো ব্রাশ করেছে বলে জানাগেছে। চুক্তি বিরোধী আঞ্চলিকদলীয় সন্ত্রাসীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।