মানিকছড়িতে শেখ রাসেল স্মৃতি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট উদ্বোধন

॥ মানিকছড়ি প্রতিনিধি ॥

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মানিকছড়ি শাখার উদোগে‘শেখ রাসেল স্মৃতি’ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০১৯ এর উদ্বোধন করা হয়েছে। ৫মার্চ শুক্রবার বিকাল ৩টায় রাণী নীহার দেবী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উক্ত ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন, জেলা পরিষদ সদস্য এম.এ জব্বার, উপজেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক মো.মাঈন উদ্দিন, নব-নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ডলী চৌধুরাণী, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো.শফিকুর রহমান ফারুক,বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. নুর ইসলাম, রাণী নীহার দেবী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দীলিপ কুমার নাথ (ভারপ্রাপ্ত), কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মংশেপ্রু মারমা, প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান, যুবলীগ নেতা সামায়ুন ফরাজী সামু,মো. জাহাঙ্গীর আলম, ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো.মোস্তফা কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদকে মা. আসাদুজ্জামান, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি রাজীব কুমার নাথ, সাধারণ সম্পাদক মো. মতিউর রহমান হাসান প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তাঁর বক্তব্যে বলেন, এ অঞ্চলের ক্রীড়ামুদী দর্শক ও খেলোয়াড়দের মানোন্নয়নে সম্প্রতি সেনাবাহিনীর উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে সফল ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শেষ হতে না হতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মানিকছড়ির নেতারা শেখ রাসেল স্মৃতি টুর্নামেন্ট ঘোষণা আবারও প্রমাণ করল তারা যুব সমাজকে নিয়ে ভাবে। খেলাধূলা উদীয়মান ছাত্র-যুবকদের মাদকাসক্ত কিংবা সমাজ ও রাষ্ট্রবিরোধী কার্যক্রম থেকে দূরে রাখতে সহায়তা করে। এভাবে সমাজের বেকার যুবক ও ছাত্রছাত্রীদের শারিরিক ও মানসিক পরিবর্তনে খেলাধূলার বিকল্প নেই। জেলা পরিষদ সবসময় এসব প্রসংশনীয় কাজে সহযোগিতা করে থাকেন। এবার এ টুর্নামেন্ট সফল করতে সব কিছইু করা হবে।

পরে তিনি শান্তির প্রতীক কবুতর ও জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উড়িয়ে খেলার উদ্বোধন ঘোষণা করেন। উদ্বোধনী খেলায় যোগ্যছোলা একাদশ টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে সব উইকেট হারিয়ে ১৫ ওভার ম্যাচে ১৭৬ রান সংগ্রহ করেন। জবাবে পাঞ্চারাম পাড়া একাদশ ১১৫ রানে অল আউট হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয়।
উল্লেখ্য যে উক্ত টুর্নামেন্টে উপজেলার মোট ১৮ দল অংশ গ্রহন করেছে।