পাহাড়ে অস্ত্রবাজী ছেড়ে আত্মসমর্পন করুন নাহয় ধ্বংস অনিবার্য :বাঘাইছড়িতে সিইসি(ভিডিও)

॥ আলমগীর মানিক-সুমন ॥

হিংসাত্মক সশস্ত্র কর্মকান্ড চালিয়ে বিশ্বের প্রায় সবগুলো বিদ্রোহী সন্ত্রাসী গোষ্ঠিগুলোসহ বাংলাদেশেরই উত্তরাঞ্চলের একসময়ে নকশাল থেকে শুরু করে নিষিদ্ধ চরমপন্থী সংগঠনগুলোর কোনো সদস্যই আইনের হাত থেকে বাঁচতে পারেনি মন্তব্য করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার একেএম নুরুল হুদা বলেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে যারাই সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করছেন অবিলম্বে আপনারা সকলেই আইনের হাতে নিজেদের সোপর্দ করুন।

অন্যথায় আপনারাও এক সময়ে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবেন, সেদিন আর বেশি দূরে নয় আপনাদের ধবংশ অনিবার্য। তাই সন্ত্রাসী জীবন থেকে সরে এসে দেশগঠনে নিজেদের নিয়োজিত করে একটি সুন্দর সম্মৃদ্ধশীল দেশ গঠনে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন সিইসি নুরুল হুদা।

গত ১৮ই মার্চ সন্ধ্যারাতে রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে সাতজনকে খুন করাসহ আরো ২৮জনকে নির্মমভাবে গুলিবিদ্ধ করে আহত করার ঘটনায় হতাহত পরিবারবর্গের মাঝে সান্তনাসহ তাদের হাতে আর্থিক সহায়তার অর্থ প্রদান রোববার দুপুরে বাঘাইছড়ি সফরে গিয়ে মতবিনিময়কালে পাহাড়ের আঞ্চলিকদলগুলোর সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের উদ্দেশ্যে সিইসি এসব কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা আরো বলেন ১৮ তারিখের হামলা অত্যন্ত নেক্কারজনক, হামলাকারী যতই শক্তিশালী হোকনা কেন তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর অস্ত্রধারীদের উদ্দেশ্য বলেন, এখনো সময় আছে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুন, না হয়, ধংস হয়ে যাবেন, সমতলেও অনেক বড় বড় মাফিয়া, ছিলো তারা আজ কোথায়, কত চরমপন্থী ছিল, জলদস্যু ছিলো অস্ত্র সমর্পন করে সুস্থ জীবনে ফিরে এসেছে আপনারাও এ সুযোগ নিন, পাহাড় অনেক উর্বর এখানে সকলের পচেস্টায় খুব সুন্দর পরিবেশ গড়ে তুলা সম্ভব আপনারাও এগিয়ে আসুন।

এরআগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বেলা সাড়ে এগারোটার সময় হেলিকপ্টারযোগে বাঘাইছড়ি পৌছেন এবং গার্ড অব অনার সালাম গ্রহণ করেই স্থানীয় প্রশাসনের সাথে একান্ত বৈঠক করে সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত হন। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ উক্ত ন্যাক্কারজনক হামলায় হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করেন সিইসিসহ তার সফরসঙ্গীগণ।

মতবিনিময় শেষে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় নিহতদের প্রতি পরিবারকে নগদ সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা এবং আহতদের প্রতিজনকে এক লক্ষ করে নগদ টাকা তুলে দেন। এসময় হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকেও নিহতদের এক লাখ ও আহতদের পঞ্চাশ হাজার টাকা করে প্রদান করা হবে বলেও জানিয়েছেন সিইসি।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাৎ হোসেন, নির্বাচন সচিব হেলাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম এরিয়া কমান্ডার জিওসি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান, বাংলাদেশ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি গোলাম ফারুক, রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ, পুলিশ সুপার মো: আলমগীর কবিরসহ স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

১৮ তারিখের হামলা অত্যন্ত নেক্কারজনক,হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে

পাহাড়ে অস্ত্রবাজী ছেড়ে আত্মসমর্পন করুন নাহয় ধ্বংস অনিবার্য :বাঘাইছড়িতে সিইসি(ভিডিও)

Posted by ChtTimes24.com on Sunday, 7 April 2019