কাপ্তাই হ্রদে অনির্দিষ্ট্যকালের নৌ ধর্মঘট স্থগিত!

॥ আলমগীর মানিক ॥

কাপ্তাই হ্রদে চলাচলকারি স্পীড বোট ও স্টাফ বোট সার্ভিস বন্ধের দাবিতে রাঙামাটিতে ডাকা অনির্দিষ্ট্যকালের নৌ ধর্মঘট অবশেষে প্রত্যাহার করে নিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌ চলাচল(যাত্রী পরিবহণ) সংস্থা কর্তৃপক্ষ। সংগঠনের বুধবার বিকেল পৌনে ছয়টার সময় রাঙামাটির জোনের চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন সেলিম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ধর্মঘট কর্মসূচী স্থগিত করার তথ্যটি নিশ্চিত করা হয়েছে। এতে উল্লেখ করা হয়, পার্বত্য চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহি বিঝু, বিহু, বৈসু, সাংগ্রাই, বৈসাবিসহ পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ ও নব নির্বাচিত সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান মহসিন রোমান এর সার্বিক সহযোগিতায় বুধবার থেকে পালন করা অনির্দিষ্ট্যকালের নৌ ধর্মঘট কর্মসূচী স্থগিত করা হয়েছে। বুধবারের সারাদিনে ধর্মঘটের কারনে নৌ পথের যাত্রীদের দূর্ভোগের জন্য দুঃখও প্রকাশ করা হয়েছে উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।

এরআগে মঙ্গলবার বিকেলে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কাপ্তাই হ্রদে চলাচলকারি স্পীড বোট ও স্টাফ বোট সার্ভিস বন্ধের দাবিতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সহযোগিতা নাপেয়ে কাপ্তাই হ্রদের সকল রুটে অনির্দিষ্ট্যকালের জন্য নৌ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিলো এখানকার লঞ্চ মালিকরা। এদিকে, এটা প্রশাসনের বিরুদ্ধে সম্পূর্ন মিথ্যাচার বলে জানিয়েছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ। তিনি জানান, আমি তাদের এই বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার বৈঠক করেছি। স্পীড বোট মালিকরা আইনের মধ্যে থেকেই সকল নিয়ম কানুন মেনে বোট চালানোর অঙ্গীকার করলেও সেটি মানতে চাচ্ছেনা লঞ্চ মালিকরা।

জেলা প্রশাসক বলেন, সময় বাঁচানোর লক্ষ্যে যাত্রীরা বেশি টাকা প্রদান করে তাদের সুবিধার জন্যে স্পীড বোট ব্যবহার করলে সেক্ষেত্রে প্রশাসনের কিছুই করার নাই। তিনি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি পরিবেশ বিবেচনায় সকলের স্বার্থ অক্ষুন্ন রেখে আমাদের সকলেরই চলা উচিত।