বান্দরবানে বর্ণাঢ্য আয়োজনে মারমা সম্প্রদায়ের সাংগ্রাই উৎসব শুরু

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

বান্দরবানে শুরু হয়েছে মারমাদের সাংগ্রাই উৎসব। উৎসবকে ঘিরে পার্বত্য জেলার আদিবাসী ও বাঙ্গালী সম্প্রদায়ের মধ্যে বইছে আনন্দের বন্যা।

প্রতিবছরের মত মারমাদের সাংগ্রাই উৎসবকে ঘিরে শনিবার সকালে সাংগ্রাই উৎসব উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে বান্দরবান স্থানীয় রাজার মাঠ থেকে বের করা হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রাটি বান্দরবানের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবার একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। এসময় উপজাতি তরুণ তরুণীরা বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে পুরাতন বছরকে বিদায় ও নতুন বছরকে স্বাগত জানায়। র‌্যালীতে অংশ নেয় মারমা,চাকমা,ম্রো,ত্রিপুরাসহ ১১ টি ক্ষুদ্র নৃ গোষ্টি সম্প্রদায়ের নারী -পুরুষসহ বাঙ্গালী জনসাধারণ।

শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। র‌্যালীতে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: দাউদুল ইসলাম,পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার,নব নিবাচিত সদর উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর,পাবত্য জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষী পদ দাশসহ সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তা ও আদিবাসী সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্ধরা। পরে রাজার মাঠে সাংগ্রাই উপলক্ষে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী মারমা সম্প্রদায়ের বয়োজ্যষ্টো পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

সাংগ্রাই উপলক্ষ্যে রবিবার বিকালে উজানী পাড়ার সাংঙ্গু নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হবে বুদ্ধ মুর্তী স্নান। সোমবার ও মঙ্গলবার এ দুইদিন বিকালে চলবে ঐতিহ্যবাহী পানি খেলা বা জলকেলি উৎসব। এছাড়া পিঠা তৈরি, সাংস্কৃতিক উৎসবসহ চলবে নানা আয়োজন। মারমাদের চারদিন ব্যাপী সাংগ্রাই অনুষ্ঠান নানা আয়োজনে চলবে মারমা সম্প্রদায়ের এই সাংগ্রাই উৎসব উদযাপন আর ১৬ এপিল সন্ধ্যায় বিহারে বিহারে সমবেত প্রার্থনার মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটবে মারমা সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী এই সাংগ্রাই উৎসবের।