মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নুসরাতকে যৌন হয়রানী ও হত্যার প্রতিবাদে বাঘাইছড়িতে মানববন্ধন

॥ বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি ॥
ফেনীর সোনাগাজী মাদ্রাসা শিক্ষার্থী “নুসরাত জাহান রাফি”র প্রতি যৌন হয়রানী ও অগ্নিসংযোগে নৃশংস হত্যাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করলো সামাজিক সেবামূলক সংগঠন “হৃদয়ে বাঘাইছড়ি”।
বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের সম্মুখে  “হৃদয়ে বাঘাইছড়ি” র প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান সোহাগ এর সভাপতিত্বে সঞ্চালনা করেন  নির্বাহী সদস্য ইমরান হোসেন জুমান। মানববন্ধনে  বক্তব্য রাখেন  কাচালং সরকারি কলেজের প্রভাষক জনাব মোঃ কামাল হোসেন মীর, লক্ষিপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জনাব জুয়েল দেব, রাঙামাটি জেলা আইনজিবী সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য ও রাঙ্গামাটি জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জনাব এডভোকেট শফিউল আলম মিয়া, সংগঠনের সদস্য আব্দুল গফুর সোবেল সহ আরো অনেকেই।
বক্তারা উল্লেখ করেন নুসরাত হত্যার দৃষ্টান্ত মুলক বিচার কার্য সম্পন্ন হলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ধর্ষণ নামক ন্যাক্কারজনক কাজের জন্য আর মানববন্ধন করতে হবে না। জুয়েল দেব বলেন বাঘাইছড়ি তে যেন ইভটিজিং সহ যৌন হয়রানীমুলক কোন কাজ না হয় সেজন্য সচেতন যুব সমাজ কে সজাগ থাকতে হবে। যেকোনো অপকর্মে প্রশাসনের সহায়তা দোষীকে আইনের হাতে তুলে সমর্পণ করতে হবে।
মানববন্ধনে সভাপতির বক্তব্যে মাহমুদুল হাসান জানান হৃদয়ে বাঘাইছড়ির সকল সদস্যরা সোচ্চার রয়েছেন বাঘাইছড়ি তে কেও যেন ইভটিজিং সহ যৌন হয়রানীমুলক কোন কাজ করার সুযোগ না পায়। যদি কোন যৌন হয়রানিকারক  কে পাওয়া যায় প্রশাসনের হাতে সমার্পন করে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির ব্যবস্থার জন্য আমরা আহবান জানাবো।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলো হৃদয়ে বাঘাইছড়ি রাঙ্গামাটি ইউনিটের আহবায়ক মোঃ আশিকুর রহমান মানিক, চট্রগ্রাম ইউনিটের সদস্য তৈয়বুর রহমান সহ বাঘাছড়ি ইউনিটের সকল সদস্য ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা।
সবাইকে মানবন্ধনে উপস্থিত থাকার জন্য সকল সদস্যদের ধন্যবাদ জানানোর মাধ্যমে মানবন্ধনের সমাপ্তি ঘোষণা  করেন প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান সোহাগ।