রাঙামাটি শহরে প্রতিবেশীর আঘাতে রক্তাক্ত গৃহবধূকে চট্টগ্রামে স্থানান্তর!

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

অবৈধভাবে ভূমি দখলে বাধা দেওয়ায় প্রতিবেশীর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়েছে হালিমা বেগম নামের এক গৃহীনি। সোমবার সকালে শহরের শান্তিনগর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এদিকে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত গুরুত্বর আহত গৃহিনী হালিমা বেগমের অবস্থার অবনতি হতে থাকায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে রেফার্ড করেছে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহেদুল হক রনি জানিয়েছেন, উক্ত ঘটনার পর আহতের স্বামীর মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টির তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় কোতয়ালী থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে আহত গৃহবধূর স্বামী আব্দুল মান্নান উল্লেখ করেছেন, সোমবার সকালে শান্তিনগরস্থ বাসটার্মিনাল সংলগ্ন এলাকায় তাদের বসতভিটার জায়গায় একটি কাঠের সিড়ি নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় প্রতিবেশী অয়ন মহিউদ্দিন, নয়ন উদ্দিন বাদশা, রিয়াদ ও আব্দুল জব্বার এই চারজন এসে আমাকে সিড়ি নির্মাণে বাধা দিয়ে উক্ত জমিটি তাদের মন্তব্য করে তারা সকলেই আমাকে মারতে আসলে আমার স্ত্রী হালিমা এগিয়ে আসে। এসময় আমার স্ত্রীকে লোহার রড দিয়ে পেটাতে থাকে। এতে তার মাথা ফেটে যায় এবং শরীরের কয়েকটি স্থানে আঘাত পেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

এই ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা সটকে পড়লে আমাদের দুইজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সকাল ১০টার সময় রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে আমি প্রাথমিক চিকিৎসা পেয়ে সুস্থ হয়ে উঠলেও প্রচুর রক্তক্ষরণে আমার স্ত্রীর অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে রেফার্ড করে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এই ঘটনায় কোতয়ালী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে আহতের স্বামী আব্দুল মান্নান। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ এমন মন্তব্য করে থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি জানিয়েছেন, এই ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।