ব্রেকিং নিউজ

জনগণের স্বার্থে আপনাদের বুলেট হাসিমুখে বরণ করবোঃ আঞ্চলিক দলের প্রতি রোমান মহসীন

॥ সৌরভ দে ॥

“আমার মৃত্যুর মাধ্যমে আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠনগুলো যদি তাদের দাবী দাওয়া পূরন করতে পারে সে ক্ষেত্রে আপনাদের বুলেট আমি হাসিমুখে বরণ করবো, তারপরও আমার প্রাণপ্রিয় রাঙ্গামাটি সদর উপজেলাবাসী যেন সুখে শান্তিতে সবাই মিলেমিশে সকল সম্প্রদায়ের লোকজন নিরাপদে বসবাস করতে পারে সেই সুযোগটুকু আমাদের দয়া করে দিন” নিজের ব্যক্তিগত ফেইসবুক ওয়ালে ঠিক এমন আপ্লুত অভিব্যাক্তি প্রকাশ করেন রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়্যারম্যান শহীদুজ্জামান মহসীন রোমান।

সোমবার ২৯ এপ্রিল উপজেলা চেয়ারম্যান তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে উপজেলাবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে আরো বলেন, “আমার উপর আল্লাহর রহমত, আমার জন্মদাতা মায়ের দোয়া ও সাধারণ মানুষের অসংখ্য ভালবাসা ও দোয়া, আশীর্বাদ রয়েছে এটাই আমার বড় শক্তি তাই আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠনগুলোর উদ্দেশ্যে বলছি আমাকে মৃত্যুর হুমকি বা ভয় দেখিয়ে লাভ নেই মৃত্যু কখন কোথায় কিভাবে কার হাতে হবে তা আল্লাহতালা ঠিক করে রেখেছেন।”

শুরু থেকেই উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বেশ আতংক ও উৎকণ্ঠার মধ্যে ছিল পাহাড়বাসী। ১৮ মার্চের নির্বাচন পরবর্তী আঞ্চলিক দল কর্তৃক বাঘাইছড়ি ও বিলাইছড়িতে নৃশংস বেশ কয়টি হত্যাকান্ড সেই আতংক অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। শঙ্কা ছিল নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের শপথ গ্রহণ নিয়েও। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আগে অনেক জনপ্রতিনিধি জানিয়েছিলেন তাদেরকে মোবাইলে প্রতিনিয়ত নানাধরনের হুমকি প্রদান করা হচ্ছে। পরবর্তীতে নিরাপত্তাবাহিনীর কঠোর নিরাপত্তার কারণে কোনরকম অঘটন না ঘটলেও হুমকী ধামকি প্রতিনিয়তই আসছে বলে জানান বেশ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি।

এইদিকে রাঙ্গামাটি সদরে রোমানের মত তরুণ ও জনবান্ধব নেতা পেয়ে প্রফুল্লিত রাঙ্গামাটির মানুষ। অনেক আশা-আকাঙ্ক্ষা নিয়েই তারা ভোট দিয়ে তাঁকে নির্বাচিত করেছেন। পাহাড়ের বিভিন্ন আঞ্চলিক দলের ক্রমাগত হুমকির খড়গ মাথায় নিয়ে কিভাবে নিজের ৫টি বছর জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাবেন রাঙ্গামাটির নতুন উপজেলা চেয়ারম্যান তাই এখন দেখার পালা।