রমজানে মূল্য স্থিতিশীল রাখতে রাঙামাটি শহরের বাজারগুলোতে জেলা প্রশাসকের ঝটিকা অভিযান

॥ আলমগীর মানিক ॥

রমজান মাসজুড়ে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর বাজার মূল্য স্থিতিশীল ও যৌক্তিক পর্যায়ে রাখা এবং ভেজাল মুক্ত খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিতে মঙ্গলবার আকস্মিকভাবে বাজার মনিটরিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন। স্থানীয় বাজারগুলোকে পুরো মাসজুড়েই এই মনিটরিংয়ে রাখার সিদ্ধান্তের আলোকে মঙ্গলবার বিকেলে ঝটিকা অভিযানে নামেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ।

এসময় রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট নজরুল ইসলাম, জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছুফি উল্লাহসহ জেলা প্রশাসনের উদ্বর্তন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। জেলা শহরের অন্যতম বনরূপা বাজার, রিজার্ভ বাজার এলাকায় স্থানীয় মুদি দোকান-তরকারি দোকান থেকে শুরু করে ফল-মূলের দোকান, মাছের বাজার, মাংসের দোকান, হাঁস-মুরগী বিক্রির দোকান ও ইফতার সামগ্রী বিক্রি করা দোকানগুলোতে গিয়ে জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ বিভিন্ন ধরনের অসঙ্গতি দেখতে পান।

এসময় জেলা প্রশাসক প্রাথমিকভাবে মৌখিক সতর্ক করে ব্যবসায়িদের উদ্দেশ্যে বলেন, রমজান মাস সংযমের মাস, এই মাসে মানুষের সেবা নিজেদের নিয়োজিত করুন। হালাল দ্রব্য সামগ্রী বিক্রি করুন ন্যায্য মূল্যে। আজ প্রথম রমজানে আপনাদেরকে আমি স্বশরীরে এসে মৌখিকভাবে সতর্ক করে দিয়ে যাচ্ছি। অন্যথায় আগামীকাল থেকে প্রতিনিয়ত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে। সেসময় অসাধু ব্যবসায়িদের হাতে নাতে ধরে শুধুমাত্র জরিমানাই নয় কারাদণ্ড দিয়ে হাজতে প্রেরণ করা হবে।

জেলা প্রশাসক ব্যবসায়ি নেতাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা সংগঠন করেছেন এই সংগঠনের মাধ্যমে মানুষের মৌলিক অধিকারের বিষয়টিও দেখা উচিত। অধিক মুনাফালোভী ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে স্থানীয় ব্যবসায়ি সমিতি কর্তৃক দৃশ্যমান ব্যবস্থা গ্রহণ করলে অন্য দুষ্ট ব্যবসায়িরা সতর্ক হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেছেন জেলা প্রশাসক।

এদিকে রিজার্ভ বাজারসহ শহরের বাজারগুলোতে অবাধে বিক্রি হওয়া জ্বালানী গ্যাস সিলিন্ডারগুলো কিভাবে বিক্রি হচ্ছে বা নিয়ম মাফিক আইন মেনে লাইসেন্স সংগ্রহ করে বিক্রি করছে কিনা সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(এডিএম)কে নির্দেশনাও জেলা প্রশাসক।

এসময় রিজার্ভ বাজারে যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার রাখার দৃশ্য দেখে বাজারের ব্যবসায়ি সমিতির নেতৃবৃন্দকে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, বাজারের সৌন্দর্যই শুধু নয় ক্রেতা ও ব্যবসায়িদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে স্থানীয় বাজার সমিতিকে এগিয়ে আসতে হবে।

যত্রতত্র গ্যাসভর্তি সিলিন্ডার রাখলে যেকোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে মন্তব্য করে জেলা প্রশাসক বলেন আমরা চাইনা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে কাউকে শাস্তি দিতে। আপনারাই এই ব্যাপারে ব্যবস্থা নিয়ে আমাদেরকে অবহিত করুন। অন্যথায় বাজারে শৃঙ্খলা ফেরাতে কঠোর ব্যবস্থা নিবে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন।