প্রধানমন্ত্রী পাহাড়ের উন্নয়নে আন্তরিক হলেও কাঙ্খিত উন্নয়নের ছোঁয়া বঞ্চিত জনগণ!

॥ নানিয়ারচর প্রতিনিধি ॥

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে কৃপণতা দেখান না। কিন্তু তাঁর দেয়া উন্নয়নের ছোঁয়া বহু জনগণ সঠিক পাচ্ছেনও না। যাদের মাধ্যমে উন্নয়নের অর্থ দেয়া হচ্ছে তাদের অধিকাংশ উন্নয়নই হচ্ছে কাগজে পত্রে। নেতৃত্ব সামাজিক ভাবে হোক রাজনৈতিক ভাবেই হোক অন্যের দ্বারা প্রভাবিত বা প্ররোচিত নের্তৃত্ব কর্তৃত্বেরও দীর্ঘস্থায়ী হয় না। কিন্তু অন্যের দ্বারা প্রভাবিত বা প্ররোচিত নের্তৃত্ব পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রাণ চ ল মানুষগুলোকে দূর্বল করে দেয়া হচ্ছে।

বুধবার (৮ মে) বিকালে নানিয়ারচর উপজেলাধীন রামহরি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে মহাপূরম হিল গ্রীণ যুব সোসাইট কর্তৃক আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্ট এর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাপ্তাহিক পাহাড়ের সময় সম্পাদক ও প্রকাশক মিলটন বড়ুয়া এসব কথা বলেন।

সোসাইটির প্রধান পৃষ্ট পোষক বিমল তালুকদার এর সভাপতিত্বে অন্যন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাপ্তাহিক পাহাড়ের সময় এর সহ-বার্তা সম্পাদক পলাশ চাকমা, জ্ঞান চাকমা, টিম প্রধান, নানিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুনীতি আলো চাকমা, সাধারণ সম্পাদক, চয়ন চাকমা, অর্থ সম্পাদক তন্টু বিকাশ চাকমা প্রমূখ।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে কৃপণতা দেখান না। জনগনের উন্নয়নের অর্থ লুটপাট করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সমাজ এবং মানুষের উন্নয়নে প্রতিদ্বন্ধী থাকা ভালো তবে এটি যেন কোন অবস্থাতে প্রতিপক্ষ না হয়ে যায়। তাহলে মানুষ ও সমাজের উন্নয়নে বাঁধাগ্রস্ত হয়ে পড়বে। অস্থিরতা বিরাজ করবে। পার্বত্য অ লে এ ধরনের খেলা ধুলার আয়োজন মানুষে মানুষে এবং সমাজের সম্পর্কের ব্যাপক উন্নয়ন ঘটাবে।

প্রধান পৃষ্ট পোষক বিমল তালুকদার বলেন, প্রত্য গ্রাম অ লে মানুষে মাঝে সম্প্রীতির বন্ধনের জন্য এ আয়োজন। তিনি বলেন, এ ফুটবল খেলায় ২৫টি গ্রামের ২৯টি দল অংশ গ্রহন করছে। মাস ব্যাপী এ খেলায় এলাকার প্রত্যেক মানুষের মাঝে আনন্দ উদ্দীপনাও রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন এর সহায়তা পাওয়া গেলে পাহাড়ের প্রত্যন্ত অ ল থেকে ভালো খেলোয়াড়ও সৃষ্টি হবে। তাই তিনি প্রত্যেকের সহযোগীতা কামনা করেন।
সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, পয়েন্ট পদ্ধতির খেলায় যারা অংশ গ্রহন করেছে তাতে সবাই ভালো করছে। আগামী ৫ জুন এর সমাপনী হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।