রাঙামাটি শহরে পুলিশী অভিযানে ইয়াবাসহ যুবক আটক

॥ আলমগীর মানিক ॥

রাঙামাটি শহরের ভেদভেদী থেকে ইয়াবা বিক্রির সময় হাতেনাতে এক যুবককে আটক করেছে কোতয়ালী থানা পুলিশ। আটককৃত যুবক শেখ মোহাম্মদ কলিম উল্লাহ আজাদ(২৫)কে ১১পিছ ইয়াবা ও মাদক বিক্রির নগদ ২৪শ টাকাসহ বৃহস্পতিবার রাতে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী থানার এসআই মোহাম্মদ মহির উদ্দিন খান।

কোতয়ালী থানার অফিসার মীর জাহেদুল হক রনি জানিয়েছেন, গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি যে, আমানতবাগ এলাকার মুসলিম পাড়াস্থ ইউছুপ ড্রাইভারের বাড়ির পাশে দুইজন যুবক ইয়াবা বিক্রি করছে।

সুনির্দিষ্ট্য তথ্যে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে এসআই মোহাম্মদ মহির উদ্দিন খানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল উক্ত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে উক্ত দুই যুবক পালিয়ে যাবার চেষ্টা চালালে ধাওয়া করে একজনকে আটক করতে সক্ষম হয়।

আটককৃত যুবক তার নাম শেখ মোহাম্মদ কলিম উল্লাহ আজাদ, পিতা: শেখ মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, মাতা: মনোয়ারা বেগম। সাং- পূর্ব জেয়ারা, দুই নং ওয়ার্ড চন্দনাইশ পৌরসভা এবং বর্তমানে রাঙামাটি শহরের রিজার্ভ বাজারের জনৈক জাফর সওদাগর এর বাসার ভাড়াটিয়া বলে জানায়।

এসময় তার দেহ তল্লাসী করে জিন্সের পকেট থেকে বিশেষভাবে রক্ষিত ১১পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট ও ইয়াবা বিক্রির নগদ ২ হাজার ৪শ টাকা পাওয়া গেছে। এসময় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কলিম জানায় তার সাথে থাকা অপর যুবকের নাম সুমন বড়–য়া, তার বাড়ি শহরের দেবাশীষ নগর এলাকায়।

এসআই মহির জানান, আমরা আটককৃত যুবক কলিম ও পালিয়ে যাওয়া অপর যুবক সুমনের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর ৩৬(১) সারণি এর ১০(ক)/৪১ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং পলাতক সুমন বড়–য়াকে আটকের চেষ্ঠা চালানো হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, কলিম বিভিন্ন স্থান থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে খুচরা বিক্রেতাদের নিকট ইয়াবা সরবরাহ করে। রিজার্ভ বাজারের প্রভাবশালী এক সাবেক জনপ্রতিনিধি কর্তৃক সংগৃহীত ইয়াবা কলিমসহ আরো কয়েকজন যুবক খুচরা বিক্রেতাদের নিকট বিক্রি করে আসছে দীর্ঘদিন ধরেই। এই তথ্য পুলিশের কাছে থাকলেও বারংবার ইয়াবা বিক্রির কৌশল পাল্টানোয় তাদেরকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা যাচ্ছিলোনা।

এসকল মাদক বিক্রেতাদের ধরতে পুরো শহরেই ব্যাপকহারে গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করার নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ সুপার আলমগীর কবির-পিপিএম। তারই নির্দেশনানুসারে শহরের মাদক বিক্রেতাদের গোয়েন্দা জালে নিয়ে আসতে কাজ করছে পুলিশ।