কাপ্তাই হ্রদ যেকোন মূল্যে অবৈধ দখলমুক্ত করা হবেঃ মৎস্য প্রতিমন্ত্রী

॥ আলমগীর মানিক ॥

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম কৃত্রিম হ্রদ রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদকে দূষণমুক্ত রাখতে এবং অবৈধ দখলদার কবল থেকে রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়েছেন সরকারের মৎস্য প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু-এমপি। শুক্রবার রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে কার্প জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্তকরণ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, কাপ্তাই হ্রদে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধিতে প্রয়োজনীয় সব রকম পদক্ষেপ গ্রহণ করবে সরকার।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ এর সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহম্মেদ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট এর পরিচালক ড. ইয়াহিয়া খান, রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ছুফি উল্লাহ প্রমুখ। এরআগে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে কাপ্তাই হ্রদে বিএফডিসির সার্বিক কর্মকান্ড তুলে ধরেন রাঙামাটি মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপক নৌ কমান্ডার মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান খান।

পরে প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবর্গ বিএফডিসি রাঙামাটি কেন্দ্রে প্রথমবারের মতো উৎপাদিত কার্প জাতীয় মাছের পোনা কাপ্তাই হ্রদের পানিতে অবমুক্ত করেন। এসময় বিএফডিসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এবছর নিজস্ব হ্যাচারি উৎপাদিত ৩০ মেট্রিক টন কার্প জাতীয় মাছের পোনা কাপ্তাই হ্রদে অবমুক্ত করা হবে।

এদিকে, বিগত বছরগুলোতে কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণের সাথে জড়িত ২২ হাজার জেলে পরিবারকে আপদকালীন খাদ্য শস্য হিসেবে ৩০ কেজি করে চাউল দেওয়া হলেও এবছর এখনো পর্যন্ত কোনো চাউল বরাদ্ধ দেয়নি সরকারের ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট্য দপ্তরগুলোতে বেশ কয়েকবার চিঠি দিয়েও কোনো উত্তর পাননি জানিয়ে এই ব্যাপারে জেলেদের জন্য পূর্ব প্রতিশ্র“তিকৃত মাথাপিছু চাউলগুলো বরাদ্ধে মৎস্য প্রতিমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ।

উল্লেখ্য, মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন নিশ্চিত করাসহ পোনা অবমুক্তকরন পরবর্তী সেগুলো আহরণ উপযোগি করতে বিগত পহেলা মে থেকে পরবর্তী তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ। বন্ধকালিন এই সময়ে কাপ্তাই হ্রদ থেকে যেকোনো মৎস্য সম্পদ আহরণ-বিপনন সম্পূর্নরূপে বন্ধ থাকবে।