মসজিদের মাছ লুট করলো ছাত্রলীগ নেতা, সেনা সদস্যসহ পাহাড়িদের একটি গ্রুপ!

তৌহিদ আহমেদ – রাঙ্গুনিয়া

১৪নং দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়ন ৬নং ওয়ার্ড নাছিম মোহাম্মদ পাড়া আব্দুল কাদের জিলানী মসজিদের মাছ লুট করা হয়েছে বলে দাবী করেছেন স্থানীয়রা।

শনিবার সকাল ৭ ঘটিকার দিকে এই ঘটনা ঘটে। স্হানীয়রা জানায় সেনা সদস্য ইমাম হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা শাওয়াল সহ বেশ কয়েকজন পাহাড়ি সন্ত্রাসী এসে সকালে আব্দুল কাদের জিলানী মসজিদের পুকুরে মাছ ধরার জাল নামায়। এসময় স্হানীয়রা তাদের বাঁধা দিলে তারা স্থানীয়দের ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। এসময় আনিছ(৫৫) ও আবুল বশর(৫০) নামে দুজন আহত হয়। আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরবর্তীতে অটোরিকশায় মাছ নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় মহিলা পুরুষ একত্রিত হয়ে ইমাম হোসেন তার ছোট ভাই শাওয়াল সহ হামলাকারীদের গনপিঠুনি দেয়। এ সময় ইমাম হোসেন, শাওয়াল সহ বেশ কয়েকজন আহত হয়। খবর পেয়ে রাংগুনীয়া থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহমদ সৈয়দ তালুকদার জানান, সকাল ৭টার দিকে ইমাম হোসেন তার দল বল নিয়ে মসজিদের মাছ লুট করতে আসে। প্রায় ৪০ হাজার টাকার মাছ লুট করে । সে সময় এলাকাবাসী তাদের বাঁধা দিলে সন্ত্রাসীরা তাদের উপর চওড়া হয়। এসময় পক্ষ এবং বিপক্ষ দলের বেশ কয়েকজন আহত হয়। ইমাম হোসেন বেশ কিছুদিন আগেও এই মসজিদের ক্যাশিয়ারের ওপর হামলা চালিয়েছিল। ইমাম হোসেন দাবি করে আসছে পুকুরটি তাদের কিন্তু এই মসজিদের আর.এস বি.এস সহ সব খতিয়ান মসজিদের নামে নাম জারি আছে। তারা যেভাবে মাছ লুট করে নিয়ে গেল এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন এবং আগেও ইমাম হোসেনের নামে এলাকায় বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ রয়েছ বলে জানান।

রাংগুনিয়া থানার এস আই কবির জানান, আমারা সংবাদ পেয়ে তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে চলে আসি। ইমাম হোসেন নামে একজন সেনা সদস্য মসজিদের মাছ লুট করে নিয়ে যাচ্ছে এসময় আমরা একটা অটোরিকশা ও মাছ ধরার জাল আটক করে থানায় প্রেরণ করি। এবং এই বিষশে আইনগত ব্যবস্হা নেওয়া হবে বলে জানান।