ব্রেকিং নিউজ

দীঘিনালায় পছন্দের ডায়াগনষ্টিকে না যাওয়ায় চিকিৎসা দেননি মেডিকেল অফিসার!

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। পছন্দের ডায়াগনষ্টিক ল্যাবে পরীক্ষা না করানোর ফলে অসুস্থ রোগী’র উপর ক্ষিপ্ত হয়ে চিকিৎসা দেননি ডাক্তার। পরে বিনা চিকিৎসায় ফিরতে হয় রোগীকে।

দীঘিনালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রাশেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয়ে সুবিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ করে ভুক্তভোগী রোগী সুজন চাকমা।

অভিযোগে তিনি জানান, কয়েকদিন যাবত সুজন চাকমা বেশ অসুস্থ ছিল। অসুস্থ শরীর নিয়ে তিনি হাসপাতালে গেলে চিকিৎসক রাশেদুল ইসলাম কয়েকটি রোগ নির্ণয়ের কথা বলে ডাক্তার “পার্বত্য ডায়াগনষ্টিক’ নামে একটি ল্যাবে পরীক্ষা করানোর জন্য বলে।

রোগি দীঘিনালা লারমা স্কয়ারের অন্য আরেকটি ডায়াগনষ্টিক ল্যাবে এক্সরে করিয়ে হাসপাতালে গেলে রাশেদুল ইসলাম রোগীর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ঊঠেন। অন্য ল্যাবে রোগ নির্ণয় করার জন্য র্দুব্যবহার করে এবং সেবা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে চিকিৎসা না নিয়েই ফিরেন তিনি।

এই বিষয়ে জানতেই চাইলে চিকিৎসক রাশেদুল ইসলাম ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন বলেন, ঐ রোগী যখন হাসপাতালে আসে আমি তখন মোবাইলে ব্যস্ত ছিলাম। তিনি আরো বলেন, একটি চক্র আমাকে হাসপাতাল থেকে তাড়ানোর জন্য এই ষড়যন্ত্র করছে।

দীঘিনালা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. একরামুল আজম জানান, এই বিষয়ে আমার কাছে কেউ লিখিতভাবে অভিযোগ করেনি। যদি কোন ডাক্তার রোগীকে সুনিদিষ্ট কোন বেসরকারি ক্লিনিকে এক্সরে বা রোগ নির্ণয়ের জন্য বাধ্য করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ যাচাই করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ইদ্রিস মিয়া জানান, এই বিষয়ে আমার কাছে কোন অভিযোগ আসেনি। তবে বিষয়টি তিনি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান।