পার্বত্যবাসীর নিরাপত্তায় প্রত্যাহারকৃত সেনাক্যাম্প পুনঃস্থাপনের দাবি উপজাতীয় নেতাদের!

॥ আলমগীর মানিক ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস পাহাড়ে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের হত্যার মিশনে নেমেছে অভিযোগ করেছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। জেএসএস এর সশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বন্ধে পার্বত্য চট্টগ্রামে পূর্বে প্রত্যাহার করে নেওয়া সেনা বাহিনীর ক্যাম্পগুলো স্ব-স্ব স্থানে পুনঃস্থাপন করার পাশাপাশি পাহাড়ে একইদিনে একই সময়ে সাঁড়াশি অভিযানের মাধ্যমে সকল অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবিও করেছেন আওয়ামীলীগসহ সমমনা দলগুলোর উপজাতীয় নেতারা। জেএসএস’র হাতে যুবলীগ নেতা ক্যাহ্লাচিং মারমা হত্যার প্রতিবাদে বুধবার রাঙামাটির বাঙ্গাল হালিয়ায় আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধনে চাকমা-মারমা ও বাঙ্গালী সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ এই দাবি জানান।

বুধবার দুপুরে বাঙ্গাল হালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বাঙ্গালহালিয়া বাজার চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন রাজস্থলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উবাচ মারমা, সাবেক চেয়ারম্যান উথিনসিন মারমা, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য নিউচিং মারমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি পুলক বড়ুয়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অংনুচিং মারমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উচসিং মারমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পুচিংমং মারমা, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি লংবতি ত্রিপুরা, বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হ্লাথোয়াই অং মারমা গঞ্জ, ইউপি চেয়ারম্যান ঞোমং মারমা, ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, সাবেক সভাপতি পুলক চৌধুরী, বিশ্বনাথ চৌধুরী, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, নয়ন চৌধুরী, সুইচাপ্রু মারমা, ফোরকান হোসেন মুন্না, মাসুম সর্দার, সাবেক ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুইথুইমং মারমা প্রমুখ।

সভায় বক্তারা অবিলম্বে পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত সকল সম্প্রদায়ের মানুষ যাতে শান্তিতে বসবাস করতে পারে সেই লক্ষ্যে দ্রুততম সময়ের মধ্যে পাহাড়ে চিরুনি অভিযান চালিয়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার এবং এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সেনাক্যাম্প পূন:স্থাপনের দাবি জানান।

গত ১৯শে মে দিবাগত রাত সোয়া এগারোটায় রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়নের নাইক্যছড়া বুমুদং পাড়ার বাসিন্দা ও ৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ক্যাহ্লাচিং মারমাকে নিজ বাড়ির সামনেই গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করে আঞ্চলিকদলীয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। এই হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে সোমবার রাতে রাঙামাটি শহরেও বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশে করে এই হত্যাকান্ড সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস এর সন্ত্রাসীরা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে রাঙামাটি জেলা যুবলীগের নেতাকর্মীরা।