চলতি মাসেই কেপিএম সিবিএ নির্বাচনঃ নেওয়া হচ্ছে তিন স্তরের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাব্যবস্থা!

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

১১ জুন মঙ্গলবার কর্ণফুলী পেপার মিলে সিবিএ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে কেপিএম প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে। চট্টগ্রামের শ্রম আদালতে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক (জেডিএল, কেপিএম কর্তৃপক্ষ এবং বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ) যৌথভাবে আলোচনা করে নির্বাচনের ঐ তারিখ নির্ধারণ করেন বলে সুত্র জানায়। নির্বাচনে সকল শ্রমিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দ ও কর্মী সমর্থকরা যাতে আচরণ বিধি মনে চলেন সেই লক্ষ্যে শনিবার (১ জুন) কেপিএম অতিথি ভবনে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দের সমন্বয়ে গুরুত্বপূর্ণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কেপিএমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী ড. এম এম এ কাদেরের সভাপতিত্বে নির্বাচন আচরণ বিধি সংক্রান্ত বৈঠকে বিশেষ অতিথি ছিলেন কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মফিজুল হক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল এবং কাপ্তাই থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নুরুল আলম। সভা সঞ্চালনায় ছিলেন কেপিএমের মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মোঃ একরাম উল্লাহ্ খন্দকার। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কেপিএম শ্রমিক কর্মচারি পরিষদ (বর্তমান সিবিএ) সভাপতি আবদুল রাজ্জাক, সাধারন সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান, সাধারন সম্পাদক মোঃ হারুন উর রশিদ এবং ওয়ার্কাস ইউনিয়নের সভাপতি মৌলবী মোঃ ইউনুছ এবং সাধারন সম্পাদক মোঃ এমরান। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কেপিএমের প্রশাসনিক কর্মকর্তা চিংসুই উ মারমা, কাজী জয়নাল আবেদীন, সন্তোষ কুমার দাশ এবং স্থানীয় রিজার্ভ ইন্সপেক্টর মোঃ আনসার আলী।

সভার শুরুতে গতবছরের নির্বচনী আচরণ বিধি পড়ে শোনান একরাম উল্লাহ্ খন্দকার। উপস্থিত সবাই আচরণ বিধি শুনে এবারের নির্বাচনেও গত বছরের আচরণ বিধি মেনে চলার জন্য বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দকে পরামর্শ দিলে সবাই একবাক্যে মেনে নেন। উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মফিজুল হক বলেন কর্ণফুলী পেপার মিল একটি ঐতিহ্যবাহী শিল্প কারখানা। একসময় ৪ হাজারেরও বেশি ভোটার থাকলেও এবার ভোটার সংখ্যা ৩০৬ জন। সকলের অংশগ্রহণে নির্বাচন যাতে সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হতে পারে সে জন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশ্রাফ আহমেদ রাসেল বলেন, ভোটার যাই হোক সর্বোচ্চ নিরাপত্তা থাকবে ভোট কেন্দ্র এবং কেপিএম কারখানা ও আবাসিক এলাকায়। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব এবং বিজিবির টহলও থাকবে এলাকায়। প্রকৌশলী ড. এম এম এ কাদের বলেন সকল শ্রমিক সংগঠনের অংশ গ্রহণ এবং প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সার্বিক সহযোগিতায় উৎসব মুখর পরিবেশ এবং কঠোর নিরাপত্তায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচনের ফলাফল সবাইকে মেনে নেবার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন ভোটের আগে ও পরে এলাকায় কোন বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি যাতে ঘটতে না পারে সে জন্য তিনি শ্রমিক সংগঠনের নের্তৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান। কাজী জয়নাল আবেদীন এবং সন্তোষ কুমার দাশ বলেন, অতীকে কেপিএমের সিবিএ নির্বাচন অনুষ্ঠিত কেপিএম কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে। তবে এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কেপিএম চিত্ত বিনোদন কেন্দ্রে। ঈদ উপলক্ষে লম্বা ছুটি থাকবে বিধায় ইতিমধ্যে চিত্ত বিনোদন কেন্দ্রে ব্যুথ নির্মাণ কাজও সম্পন্ন হয়েছে বলে তাঁরা জানান।