রাঙামাটি শহরে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্টে বিপুল পরিমান রোহিঙ্গা সামগ্রী জব্দ

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

নিজ দেশ বার্মা থেকে বাংলাদেশে পরবাসী হয়ে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা নামক জাগিগোষ্ঠিদের জীবিকা নির্বাহের জন্য দেশী-বিদেশী দাতা সংস্থাগুলো কর্তৃক প্রদান করা বিভিন্ন ধরনের সামগ্রী বেশ কিছুদিন ধরেই পার্বত্য জেলা রাঙামাটির বিভিন্ন স্থানে অবাধে বিক্রি করছিলো একটি চক্র।

প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে স্থানীয় একটি পক্ষের সহায়তায় খোদ রাঙামাটি শহরেই এসকল জিনিসপত্র বিক্রি করে আসছে চক্রটি। নগদ অর্থের লোভ দেখিয়ে রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে এবং কক্সবাজার, চকরিয়া, চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানসহ বালুছড়া নামক এলাকা থেকে এসকল রোহিঙ্গা সামগ্রী সংগ্রহ করে রাঙামাটিসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় এসকল সামগ্রী বিক্রি করছে একটি চক্র।

বিষয়টি নিয়ে বুধবার অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিএইচটি টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকম এর সংবাদ প্রচার করা হলে বিষয়টি রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের নজরে আসে। সকালে সংবাদটি প্রচার হওয়ার পরপরই একই দিন বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উত্তম কুমার দাশ এর নেতৃত্বে শহরের বনরূপা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমান ষ্টিলের সামগ্রী, সাবান, ট্রুথব্রাশ, ইউএনএইচসিআর এর সেরিলাক, ওয়ার্ল্ড ফুড এর সামগ্রী, ন্যাপকিন, লাক্স ও মেরিল সাবান, বিদেশী দাতা সংস্থা থেকে প্রদত্ত বিভিন্ন জিনিসপত্র জব্দ করে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় মোবাইল কোর্টের গাড়ি দেখেই দোকান পরিচালকরা মালামাল রেখে পালিয়ে যায়।

জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উত্তম কুমার দাশ জানান, দরিদ্র রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির সহায়তার লক্ষ্যে বিভিন্ন দাতা সংস্থা থেকে এসব জিনিসপত্র ব্যবহারের জন্য প্রদান করা হয়। কিন্তু একটি অসাধু চক্র রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে এসব জিনিসপত্র অনেক সময় চুরি করে এবং সংগ্রহ করে নিয়ে আসে বলে আমরা খবর পেয়েছি। শহরের বাজারে বিক্রি করছে এমনটি জানার পর উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় আমরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করি।

তিনি জানান, বিক্রয় নিষিদ্ধ জিনিসপত্র বিক্রির সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন যেকোনো মুহুর্তে অভিযান পরিচালনায় বদ্ধ পরিকর। এ ধরনের কর্মকান্ডের সাথে যারাই জড়িত তাদের বিরুদ্ধে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে জনাব উত্তম কুমার বলেন, প্রয়োজনে তথ্য প্রদানকারীর নাম ও ঠিকানা সম্পূর্ন গোপন রাখবে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

বুধবার দুপুরে এই প্রকাশিত খবরটি দেখতে নীচের লিংকে ক্লিক করুন:

বিশেষ টোকেন নিয়ে রাঙ্গামাটিতে দেদারছে বিক্রি হচ্ছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিষিদ্ধ পণ্য!