ব্রেকিং নিউজ

ভূয়া কাজী সেজে ২০০ বাল্য বিবাহঃ অবশেষে ইউএনও’র ফাঁদে ধরা!

॥ মোহাম্মদ হোসেন – হাটহাজারী ॥

এবার বাল্য বিবাহ রোধকল্পে তদন্তে নেমেছেন উপজেলা প্রশাসন । সম্প্রতি সময়ে হাটহাজারীতে বাল্য বিবাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় এই উদ্যোগ নিয়েছেন প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুর আমিন উপজেলা থানা,ও আদালতের চলমান বিভিন্ন মামলার তদন্ত বিভিন্ন দপ্তরের মামলা ও বিবাহ বিচ্ছেদ বৃদ্ধি বিষয় গুলো নিয়ে বাল্য বিবাহ রোধে এই নিয়েছেন বলে জানা গেছে। এ সবের পিছনে জড়িত রয়েছে তা খতিয়ে দেখছেন উপজেলা প্রশাসন।

গত সপ্তাহে বাল্য বিবাহ ঠেকাতে ইউএনও মোহাম্মদ রুহুর আমিনের নতুন কৌশলে ধরা পড়ল এক ভুয়া কাজী। সে হাটহাজারীর মানুষের কাছে বেশ পরিচিত হলেও বাল্য বিবাহের মত অপরাধের বড় হোতা। সাম্প্রতিক সময়ে দুই শতাধিক বাল্য বিবাহের হোতা ভুয়া কাজী তপন কান্তি নাথ ওরফে মো হাসান(৪২) কে আটকের পর বেরিয়ে আসে নানা অনিয়ম। গত কয়েক বছর উপজেলা ও পৌর এলাকায় তার এ পেশায় প্রায় ২০০ শত বিয়ে পরিয়েছে আটককৃত এই ভুয়া কাজী হাসান। তাকে আটকের পর নানা তর্থ্য বেরিয়ে আসলেও তদন্তের স্বার্থে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ গুলো প্রকাশ করেনি।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুর আমিন জানান, এত বছর ভুয়া কাজীর আড়ালে হাসান এত বিবাহের কাজ সম্পন্ন করেছে তা রীতিমত আশ্চর্য্যের ব্যাপার। বাল্য বিবাহ রোধে তিনি আরো কিছু প্রদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। এই বিষয়ে হাটহাজারীর সচেতন নাগরিকদের সহযোগিতা কামনা করেন।