ব্রেকিং নিউজ

নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ প্রতিষ্ঠান!

॥ আল-মামুন – খাগড়াছড়ি ॥

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণের পর চেঙ্গী,মাঈনী ও ফেনী নদীর পানি কমতে থাকায় বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। এতে করে বিভিন্ন স্কুল,মাদরাসা,অফিস,বসতবাড়ি ও ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হচ্ছে।

খরস্রোতা চেঙ্গী, মাঈনী ও ফেনীসহ তিনটি নদী টানা কয়েকঘন্টা বৃষ্টি হলেই পাহাড়ি ঢলে নিচু এলাকার নদী তীরবর্তী গ্রাম গুলো ডুবে যায়। বৃষ্টি কয়েক ঘন্টার জন্য থামলেই নদীগুলোর স্রোতে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়। গত কয়েকদিনে দিঘীনালার মাঈনী , রামগড়ের ফেনী ,পানছড়ি ও খাগড়ছড়ির চেঙ্গী নদীর ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারণ করেছে।

এদিকে টানা ভারী বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলে ভেঙ্গে গেছে পানছড়ি উপজেলার দুধুকছড়া ফুট ব্রীজ, নদীর গর্ভে বিলীন হচ্ছে উপজেলার চেংগী ইউপি কার্যালয়। বন্ধ হয়েছে উপজেলার মুনিপুর-তারাবন সড়ক যোগাযোগ। পানছড়িতে মোট ১১টি বসতবাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মাঈনী নদীর ভাঙ্গনে দিঘীনালার চোংড়াছড়ি, মেরুং, বোয়ালখালীর হাসিনশরপুর এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘর ও ফসলি জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। খাগড়ছড়িতে চেঙ্গী নদীর ভাঙ্গনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের রাবার কারখানা,পৌর বাস ট্রার্মিনালসহ বিভিন্ন স্থাপন্য হুমকির মুখে পড়েছে। এছাড়াও পাহাড়ের বিভিন্ন ছোট-বড় ছড়া ও খালের ভাঙ্গনও দেখা দিচ্ছে।