শোক দিবসে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে বরকলে জেএসএস’র ৪ চাঁদাবাজ আটক!

॥ বরকল প্রতিনিধি ॥

পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপের একটি দল জোর পূর্বক স্থানীয়দের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে এমন সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে ১৫ আগস্ট ২০১৯ তারিখ আনুমানিক দুপুর ১টার দিকে রাংগামাটি জেলার বরকল উপজেলার কাটতলী বাজার নামক স্থানে সেনাবাহিনী এবং বিজিবি’র সমন্বয়ে যৌথবাহিনীর একটি দল অভিযান পরিচালনা করে। পরবর্তীতে, অভিযান দলটি উক্ত স্থান হতে ০৪ জন চাঁদাবাজকে চাঁদা আদায়কালে হাতেনাতে আটক করতে সক্ষম হয়।

আটককৃত চাঁদাবাজরা হলেনঃ ১। সুনিল চাকমা (৩৫), পিতাঃ শান্তি কুমার চাকমা, রাধামন পাড়া, কাটতলী বাজার, বরকল, রাঙ্গামাটি।

২। আপন চাকমা (৩০), পিতাঃ ভাগ্য চন্দ্র চাকমা, রাধামন পাড়া, কাটতলী বাজার, বরকল, রাঙ্গামাটি।

৩। সাধন চাকমা (২৭), পিতাঃ ধর্মচন্দ্র চাকমা, রাধামন পাড়া, কাটতলী বাজার, বরকল, রাঙ্গামাটি।

৪। হিমেল চাকমা (৩৩), পিতাঃ ধর্মচন্দ্র চাকমা, রাধামন পাড়া, কাটতলী বাজার, বরকল, রাঙ্গামাটি।

উল্লেখ্য, উক্ত চাঁদাবাজরা জনৈক মোঃ ইউসুফ (৪৫), পিতাঃ মোঃ আশরাফ, গ্রামঃ বরুনাছড়ি, পোস্টঃ শুভলং, থানাঃ বরকল, জেলাঃ রাঙ্গামাটি নামক স্থানীয় এক কাঠ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নগদ ২,০০,০০০/- (দুই লক্ষ টাকা) টাকা চাঁদা দাবী করে। কিন্তু মোঃ ইউসুফ চাঁদা দিতে ব্যর্থ হলে তাকে তার কাঠের নৌকাসহ জোরপূর্বক কাটতলী বাজার এলাকায় তুলে নিয়ে যায়। ঘটনা জানার পরপরই তাৎক্ষণিকভাবে যৌথবাহিনী অভিযান পরিচালনা করে কাটতলী বাজার হতে বর্ণিত চাঁদাবাজ ও অপহরণকারীদের গ্রেফতার এবং কাঠ ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে।

পরবর্তীতে, তাদেরকে শুভলং পুলিশ ফাঁড়িতে হস্তান্তর করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটকৃতরা পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএস (সন্তু লারমা গ্রুপ)’র সদস্য বলে জানা যায়। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অপহরণের দায়ে বরকল থানায় মামলা করা হয়েছে। এই অভিযান পার্বত্য চট্টগ্রামের চাঁদাবাজ ও সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি সফল অভিযান। পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি ও শৃংখলা বজায় রাখতে নিরাপত্তা বাহিনীর এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।