রাজস্থলীতে মাইন বিস্ফোরণে আহত ২ সেনাসদস্যঃ ৩ উপজেলায় নিরাপত্তা জোরদার

প্রতীকী ছবি

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাজস্থলীতে সেনাবহিনীর একটি টহল দলের উপর গুলি চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এতে সৈনিক পদের এক সেনা সদ্যস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন আহত হয়েছেন একজন। নিতহ সেনা সদস্যের নাম নাসিম (১৯)। পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে তল্লাসে চালাতে গিয়ে মাটিতে পুতে রাখা মাইন বিষ্ফোরন হয়ে আরো দুই সেনা সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন ক্যাপ্টেন মেহেদি ও সৈনিক মুহসীন।

রোববার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার গাইন্দা ইউনিয়নের দূর্গম পয়তু পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ, সেনা বাহিনী ও স্থানীয় সুত্র এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। রাজস্থলী থানার ওসি তদন্ত সৈয়দ ওমর জানান, ঘটনাটি দূর্গম এলাকায় হওয়ায় ঘটনাস্থলে এখনো পুলিশ পৌঁছাতে পারেনি।

জানা গেছে সকাল ১০টার দিকে ওই এলাকায় সেনা বাহিনীর একটি টহল দলের উপর ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় দুই সেনা সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। আহত সেনা সদস্যকে উদ্ধার করে হেলিকপ্টার যোগে চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখানে সৈনিক নাসিম মারা যান।

এ ঘটনার পর সেনাবহিনীর আরো একটি দল ঘটানস্থলে তল্লাসী চালানোর সময় বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মাটিতে পুতে রাখা একটি মাইন বিষ্ফোরন হলে গুরুতর আহত হন ক্যাপ্টেন মেহেদি ও সৈনিক মুহসীন। তাদের উদ্ধার করে হেলিকপ্টার যোগে চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনার সাথে কারা জড়িত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাৎক্ষনিকভাবে নিশ্চিত করতে না পারলেও স্থানীয়রা ধারনা করছেন মারমা লিবারেশন পার্টি (এমএলপি) নামক আঞ্চলিক একটি দলের সন্ত্রাসীরা এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকতে পারে। ওই এলাকাটি এমএলপি অধ্যুষিত বলে জানায় স্থানীয়রা।

এদিকে ঘটনাদ্বয়ের পরপরই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে জেলা পুলিশ। পুলিশ সুপার আলমগীর কবীরের (পিপিএম -সেবা) নির্দেশক্রমে জেলার আইন- শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জেলা পুলিশের কার্যক্রম জোরদার করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( কাপ্তাই সার্কেল) জুনায়েত কাউছার এর নেতৃত্বে কাপ্তাই, চন্দ্রঘোনা ও রাজস্থলী এলাকায় টহল, চেকপোস্ট ডিউটির পাশাপাশি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।